বিশ্বে বায়ু দূষণ ও দূষিত শহরগুলোর মধ্য অন্যতম ঢাকা। বৈশ্বিক বায়ু পরিস্থিতি, ২০১৭ অনুযায়ী দূষিত বায়ুর শহরের তালিকায় ঢাকার অবস্থান দ্বিতীয়। সবার ওপরে রয়েছে ভারতের দিল্লি। পরের অবস্থানে আছে পাকিস্তানের করাচি ও চীনের বেইজিং।

গত মঙ্গলবার বিশ্বজুড়ে একযোগেপ্রতিবেদন প্রকাশ করে আমেরিকাভিত্তিক গবেষণা সংস্থা হেলথ ইফেক্টস ইনস্টিটিউট এবং ইনস্টিটিউট ফর হেলথ মেট্রিকস অ্যান্ড ইভালুয়েশন

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, ১৯৯০ থেকে ২০১৫ সালের মধ্যে বিশ্বে বায়ুদূষণ সবচেয়ে বেশি বেড়েছে ভারত বাংলাদেশে আর এই দূষণে সবচেয়ে বেশি ক্ষতির ঝুঁকিতে আছে বাংলাদেশ আর বায়ুতে যেসব ক্ষতিকর উপাদান আছে, তারমধ্যে মানবদেহের জন্য সবচেয়ে মারাত্মক উপাদান হচ্ছে পিএম . গত দুই বছরে চীনকে টপকে ওই দূষণকারী স্থানটি দখল করেছে ভারত চীন ভারতের পরেই বাংলাদেশের অবস্থান বায়ুদূষণে বাংলাদেশে বছরে লাখ ২২ হাজার ৪০০ মানুষের মৃত্যু হচ্ছে বলেও প্রতিবেদনে বলা হয়েছে

বায়ু দূষণ প্রসঙ্গে পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন (পবা)’র চেয়ারম্যান আবু নাসের খান বলেন, প্রতিদিন যেভাবে ঢাকার বায়ু দূষিত হচ্ছে; তাতে এ প্রতিবেদন ফেলে দেয়া যায় না। রাজধানীতে বিভিন্ন উন্নয়ন কাজে খোড়াখুড়ি, যথা সময়ে ময়লা অপসারণ না করা, পরিবহন ও শিল্প কারখানার ধোঁয়া এবং ঢাকার চারপাশে অপরিকল্পিতভাবে গড়ে ওঠা ইটভাটা বায়ু দূষণের প্রধান কারণ।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে, সিটি কর্পোরেশন, পরিবেশ অধিদপ্তরসহ সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোকে ভূমিকা রাখতে হবে। কঠোর নজরদারি ও দায়ীদের শাস্তির বিধান করা জরুরি। সেইসঙ্গে মানুষকে সচেতন করতে পারলেও কেবল পরিস্থিতির উন্নতি সম্ভব বলে মনে করেন এ পরিবেশ সংগঠক।#


পার্সটুডে/শামস মণ্ডল/আশরাফুর রহমান/১৭

২০১৭-০২-১৭ ০০:৫২ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য