• ৪ মন্ত্রীর দফতর রদবদল, ৪ জনের বণ্টন
    ৪ মন্ত্রীর দফতর রদবদল, ৪ জনের বণ্টন

বাংলাদেশে নতুন নিয়োগ পাওয়া চার মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীর মধ্যে দপ্তর বন্টন করা হয়েছে। পাশাপাশি পুরোনো মন্ত্রীদের মধ্যে কয়েকজনের দপ্তর পুনর্বন্টন করা হয়েছে। আজ (বুধবার) দুপুরের মন্ত্রিসভার দফতর পুনর্বণ্টন করা হয়েছে। বৈঠকের পর এক ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, আট মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীর দফতর পুনর্বণ্টন করা হয়েছে। বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয় থেকে আনোয়ার হোসেন মঞ্জুকে দেয়া হয়েছে পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব। আর পানিসম্পদ মন্ত্রণালয় থেকে বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দওয়া হয়েছে আনিসুল ইসলাম মাহমুদকে। বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসা রাশেদ খান মেননকে দেয়া হয়েছে সমাজকল্যাণমন্ত্রীর দায়্ত্বি। আর পর্যটন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে নতুন নিয়োগ পাওয়া এ কে এম শাজাহান কামালকে। আর সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হয়েও মন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করে আসা নুরুজ্জামান আহমেদ এখন থেকে প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করবেন। ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিমকে তথ্য প্রতিমন্ত্রী করা হয়েছে।

নতুন তিন মন্ত্রীর শপথ

মন্ত্রিপরিষদ সচিব আরও জানান, মন্ত্রিসভার সদস্য হিসেবে নতুন শপথ নেয়া নারায়ণ চন্দ্র চন্দকে দেয়া হয়েছে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রীর দায়িত্ব। এছাড়া, মোস্তাফা জব্বারকে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী এবং কাজী কেরামত আলীকে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাদ্রাসা ও কারিগরি বিভাগের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

গতকাল (মঙ্গলবার) সন্ধ্যায় বঙ্গভবনে প্রথমে তিন মন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ, মোস্তফা জব্বার ও শাহজাহান কামালকে শপথবাক্য পাঠ করান প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ। এরপর প্রতিমন্ত্রী হিসেবে কাজী কেরামত আলীকে শপথবাক্য পাঠ কারন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

শপথ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, মন্ত্রিসভার সদস্য, সংসদ সদস্যসহ সরকারের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা।

নতুনদের মধ্যে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস- বেবিস সভাপতি মোস্তফা জব্বার নির্বাচিত সংসদ সদস্য না হওয়ায় তাকে টেকনোক্র্যাট কোটায় মন্ত্রী করা হয়। আগে থেকে প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করা নারায়ণ চন্দ্র চন্দকে পূর্ণমন্ত্রী করা হয়েছে। তিনি বর্তমান সরকারের প্রথম থেকেই মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছিলেন।

গত ১৭ ডিসেম্বর ওই মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ছায়েদুল হকের মৃত্যুতে ১৭ ডিসেম্বরের পর থেকে পদটি ফাঁকা ছিল।#

পার্সটুডে/আশরাফুর রহমান/৩

২০১৮-০১-০৩ ১৫:১০ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য