• বিএনপির শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে সরকার অশান্তি সৃষ্টি করছে: মির্জা ফখরুল

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে সরকার অশান্তি সৃষ্টি করছে বলে অভিযোগ করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ মুখে গণতন্ত্রের কথা বলে। কিন্তু বিরোধীদলকে তাদের গণতান্ত্রিক কর্মসূচি পালন করতে দেয় না। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, আমাদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে নাকি বাধা দেন না। অথচ আজ চেয়ারপারসনের মুক্তির দাবিতে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে অনুপ্রবেশ করে হামলা চালিয়েছে। কর্মসূচি পণ্ড করে দিয়েছে।

আজ (বৃহস্পতিবার) দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন। এ সময়, পুলিশের হামলার নিন্দা জানিয়ে শনিবার ঢাকা মহানগরীর থানায় থানায় বিক্ষোভ কর্মসূচি ঘোষণা করেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল ইসলাম

বিএনপি মহাসচিব বলেন, মিথ্যা মামলায় চেয়ারপারসনকে সাজা দেয়ার পরও প্রতিটি কর্মসূচি আমরা শান্তিপূর্ণভাবে করছি। এই দেখে আওয়ামী লীগের গাত্রদাহ হচ্ছে। তাই আমাদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে হামলা করে অশান্তি সৃষ্টি করছে।

সরকারের ভূমিকার সমালোচনা করে তিনি বলেন, সরকার ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর আচরণে দেশে ভীতির পরিবেশ তৈরি হয়েছে। যে পরিস্থিতি সরকার সৃষ্টি করল, তা থেকে ফিরে আাসা খুবই দুরূহ ব্যাপার হয়ে দাঁড়াবে।

মির্জা ফখরুল বলেন, যারা আমাদের নেতৃস্থানীয় ও দল পরিচালনার সঙ্গে যুক্ত, তাদের গ্রেফতার করা হচ্ছে। তাই আগামী ১০ মার্চ ঢাকা মহানগরের থানায় থানায় প্রতিবাদ কর্মসূচি ঘোষণা করছি।

তিনি আরও বলেন, আমরা আদালতের কাছে যেতেও ভয় পাই। কারণ আমরা দেখেছি, বর্তমান সরকার আদালতের ওপর পূর্ণ কর্তৃত্ব নিয়ন্ত্রণ করতে সক্ষম হয়েছে। তাই সেখানে যাবো কী যাব না, তা ভেবে দেখতে হবে।

এর আগে, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বিএনপির অবস্থান কর্মসূচি পুলিশের বাধার মুখে পণ্ড হয়ে যায়। কর্মসূচিতে অংশ নিতে সকাল থেকেই প্রেস ক্লাব এলাকায় জড়ো হন বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা। যোগ দেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতারাও। দেশব্যাপী পূর্বঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী আজ (বৃহস্পতিবার) সকাল থেকে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে জড়ো হন দলটির নেতাকর্মীরা। বেলা ১১টায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সভাপতিত্বে এ অবস্থান কর্মসূচি শুরু হয়ে দুপুর ১২টা পর্যন্ত চলার কথা ছিল। কিন্তু বেলা পৌনে ১২টার দিকে লাঠিচার্জ করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয় পুলিশ। এ সময় ছাত্রদল ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি মিজানুর রহমানসহ তিনজনকে আটক করে তারা।#

পার্সটুডে/শামস মণ্ডল/আশরাফুর রহমান/৮

 

ট্যাগ

২০১৮-০৩-০৮ ২০:০৯ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য