২০১৮-১২-১১ ১৯:৪০ বাংলাদেশ সময়

বাংলাদেশের প্রধান নির্বাচন কমশনার কে এম নুরুল হুদা আজ বলেছেন, নির্বাচনের উত্তাপ ছড়িয়ে পড়েছে। শুধু আমাদের লক্ষ্য রাখতে হবে যে, উত্তাপ এই পরিবেশ যেন উত্তপ্ত না হয়। উত্তপ্ত হয়ে নির্বাচনী পরিবেশ যেন ব্যাহত না হয়, ব্যাঘাত না ঘটে।

তবে, বিএনপি’র সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, প্রতীক বরাদ্দের পর প্রচারণা শুরুর দিনেই বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর আওয়ামী সন্ত্রাসী ও আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা সশস্ত্র আক্রমণ শুরু করেছে। বিভিন্নস্থানে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট মনোনীত প্রার্থীদের মিছিলে ও কার্যালয়ে হামলা ও ভাঙচুর করা হচ্ছে।

নির্বাচন কমিশন নির্বাচনী প্রচারণার ন্যূনতম পরিবেশ তৈরি করতে ব্যর্থ হওয়ায় এবং আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর উপর নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠিত না করতে পারায় এসব হামলা হচ্ছে বলেও মন্তব্য করেন রিজভী।

কে এম নুরুল হুদা 

ঠাকুরগাঁওয়ে ফখরুলের গাড়িবহরে হামলা

ইতোমধ্যে ঠাকুরগাঁওয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামের গাড়িবহরে হামলা হয়েছে। সকালে নির্বাচনী প্রচারণা শুরুর পর ঠাকুরগাঁওয়ের বেগুনবাড়ি এলাকায় সরকারি দলের নেতাকর্মীরা বিএনপি মহাসচিবের গাড়িবহরে হামলা চালায়। এসময় গাড়ি বহরের বেশ কয়েকটি গাড়ি ভাংচুর করে। তবে মহাসচিব অক্ষত আছেন।

মওদুদের পথসভায় হামলা, ভাঙচুর

বিএনপি প্রার্থী ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ আজ সকালে তার নির্বাচনী এলাকা কবিরহাট বাজারে পূর্ব ঘোষিত পথসভায় অংশ নিতে গেলে আওয়ামী লীগ সমর্থকরা হামলা চালায়। এসময় সংঘর্ষে উভয় দলের ৪০ জন আহত হয়েছে। হামলায় কমপক্ষে ২৫টি দোকানপাট, ঘরবাড়ি ও বিএনপি অফিস ভাংচুর হয়।
হামলায় কবিরহাট উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কামরুল হুদা লিটনসহ ২০ জন নেতাকর্মী আহত হয়।

বগুড়ায় বিএনপি প্রার্থীর গাড়িবহরে হামলা  

অনুরুপ হামলার ঘতনা ঘটেছে বগুড়ার ধুনটেমঙ্গলবার ধুনট পৌর শহরের কলাপট্টি এলাকায় নির্বাচনী প্রচারণার প্রথম দিনে বিএনপি প্রার্থী গোলাম মোহাম্মদ সিরাজের গাড়িবহরে হামলা করা হয়েছে। এসময় ব্যাপক ভাঙচুর এবং চারটি মোটরসাইকেলে আগ্নিসংযোগ করা হয়।

রুহুল কবির রিজভী

পুলিশ এখন ভয়ঙ্কর আতঙ্কের নাম: রিজভী

এদিকে, বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির আজ বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেছেন, প্রচারণার শুরুতেই নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে ঢাক-ঢোল পিটিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ছত্রছায়ায় মিছিল সমাবেশ করেছে আওয়ামী লীগ। এ মিছিল থেকে তারা রাস্তার ধারে বিএনপির অফিস দেখলেই সেই অফিসে হামলা চালিয়ে তছনছ করেছে।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন,  রাজধানীসহ সারাদেশে পুলিশি তাণ্ডব থামছেই না। বিএনপি নেতাকর্মীদের বাড়ি বাড়ি হামলা, গ্রেপ্তার ও গুম বন্ধ হচ্ছে না। পোশাকে ও সাদা পোশাকে পুলিশ এখন ভয়ঙ্কর আতঙ্কের নাম।

দেশকে রক্তপাতের দিকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে: অলি

এর আগে, ২০ দলীয় ঐক্যজোটের প্রধান সমন্বয়কারী ও এলডিপি চেয়ারম্যান ড. কর্নেল (অব.) অলি আহমদ আসন্ন নির্বাচন ঘিরে দেশে রক্তপাতের আশঙ্কা করে বলেছেন, ‘নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ডের দাবি পুরণ হয়নি। সাত দাবির একটিও পূরণ হয়নি। গ্রেপ্তার অভিযান চলছে। এতে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। জনগণকে বাইরে রেখে ক্ষমতায় যাওয়ার প্রক্রিয়া চলছে। এর মাধ্যমে দেশকে রক্তপাতের দিকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

গতকাল সোমবার বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ আশঙ্কার কথা ব্যক্ত করেছেন।

বিএনপি অভিযোগ করেছে,  গতকাল নির্বাচনী প্রচারণার প্রথম এ দিনে নাটোরের লালপুরে নাটোর-১ আসনে বিএনপি জোটের প্রার্থী মনজুরুল ইসলাম বিমলের গাড়িতে দুর্বৃত্তদের হামলায় আহত হন মনজুরুল ইসলাম বিমলসহ তিনজন।

বিভিন্ন স্থানে নির্বাচনী মিছিলে হামলা

সিরাজগঞ্জে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির কর্মীদের সংঘর্ষে উভয়পক্ষের ৭ জন আহত হন।

ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ উপজেলা শহরে ঠাকুরগাঁও-৩ আসনে মহাজোটের প্রার্থী ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা ইয়াসিন আলীর পক্ষে প্রচারকালে স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা ইমদাদুল হকের সমর্থকরা হামলা চালায়।

চাঁদপুর-৪ (ফরিদগঞ্জ) আসনে বিএনপির প্রার্থী আলহাজ এমএ হান্নান এর মিছিলে পুলিশ বাধা দিলে সংঘর্ষ হয়। এতে পুলিশসহ কমপক্ষে ৩০ জন আহত হন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ লাঠিচার্জ ও ৬ রাউন্ড শটগানের গুলি ছোড়ে।

বিএনপির পক্ষ থেকে আরো অভিযোগ করা হয়েছে, খুলনা-২ আসনে বিএনপির প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জু ও খুলনা-৩ আসনের প্রার্থী রকিবুল ইসলাম বকুল, শেরপুর-৩ (শ্রীবরদী-ঝিনাইগাতী) আসনে বিএনপির প্রার্থী মাহমুদুল হক রুবেলকে প্রচার মিছিল করতে বাধা দিয়েছে পুলিশ  ও সরকারি দলের সমর্থকরা।

এছাড়া পুলিশ চট্টগ্রামের সীতাকুন্ড উপজেলার দক্ষিণ ভাটিয়ারি ইউনিয়নের মুজিব চৌধুরীর বাড়িতে নির্বাচনী সভা চলাকালে চট্টগ্রাম-৪ (সীতাকুন্ড) আসনে বিএনপির প্রার্থী ইসহাক কাদের চৌধুরীর প্রায় ১৫ নেতাকর্মীকে আটক করেছে।  

ধানের শীষের পক্ষে নির্বাচনী কাজ করার অপরাধে ফরিদপুরে ফিরোজ সরদার (২৫) নামে এক ছাত্রদল নেতাকে মোটরসাইকেলে তুলে নিয়ে যেয়ে বেধড়ক পিটিয়ে ও কুপিয়ে গুরুতর জখম করা হয়েছে।

৭ বিএনপি নেতাকে তুলে নেয়ার অভিযোগ

এদিকে, রাজধানীতে ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে বিএনপির সাত জনকে তুলে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এদের মধ্যে মিরপুর থানা বিএনপির সভাপতি আবুল হোসেনসহ তিন নেতাকে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) পরিচয়ে উঠিয়ে নেওয়ার কথা জানিয়েছেন আবুল হোসেনের ছেলে আবদুল্লাহ আল মামুন।

সোমবার ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের সহসভাপতি মুকিতুল আহসান রঞ্জু ও গুলশান বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবদুল আলীম নকীকে গুলশান থেকে ডিবি পুলিশ তুলে নিয়ে গেছে বলেও খবর পাওয়া গেছে।

অন্যদিকে, ধানের শীষের সমর্থনে কাজ করার অভিযোগে কামরুনাহার নামে এক নারীকর্মীকে তার শিশু সন্তানসহ তাদের মিরপুরের বাসা থেকে সোমবার বিকেলে মিরপুর থানা পুলিশ ধরে নিয়ে গেছে বলে অভিযোগ করেছেন তার স্বামী লতিফ। এ বিষয়ে মিরপুর থানা পুলিশ বলছে, বিভিন্ন অভিযোগে সোমবার কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে। এদের মধ্যে একাধিক নারীও রয়েছেন। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বিএনপি এবং এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনসহ বিরোধীদলীয় নেতাকর্মীদেরকে গ্রেপ্তার এবং নেতাকর্মীদের বাড়িতে বাড়িতে তল্লাশীর নামে পুলিশি তাণ্ডবের এসকল ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানোর পাশাপাশি মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারসহ অবিলম্বে আটক নেতাকর্মীদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানিয়েছে বিএনপি।#

পার্সটুডে/আবদুর রহমান খান/আশরাফুর রহমান/১২

খবরসহ আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত সব লেখা ফেসবুকে পেতে এখানে ক্লিক করুন এবং নোটিফিকেশনের জন্য লাইক দিন

ট্যাগ

মন্তব্য