২০১৮-১২-১৪ ১৪:৫৭ বাংলাদেশ সময়
  • ওবায়দুল কাদের (ফাইল ফটো)
    ওবায়দুল কাদের (ফাইল ফটো)

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিজয়ের মাস ডিসেম্বরে যে নির্বাচন হচ্ছে সে নির্বাচনে দেশের জনগণ সাম্প্রদায়িক শক্তির ধারক-বাহক বিএনপিকে প্রত্যাখ্যান করে মুক্তিযুদ্ধের প্রতীক নৌকা মার্কাকে বিজয়ী করবে।

আজ (শুক্রবার) সকালে রাজধানীর মিরপুরে শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তিনি এ কথা বলেন।

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘সাম্প্রদায়িক শক্তির ধারক-বাহক হচ্ছে বিএনপি। বিজয়ের মাসে এই সাম্প্রদায়িক শক্তিকে প্রত্যাখ্যান করে দেশবাসী নৌকার বিজয়কে নিশ্চিত করবে।’

তিনি বলেন, দেশের মানুষ দু’ভাগে বিভক্ত। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী অসাম্প্রদায়িক শক্তি বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ, আর সাম্প্রদায়িক স্বাধীনতা বিরোধী অশুভ শক্তি বিএনপির নেতৃত্বে একত্রিত হয়েছে। আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে মুক্তিযুদ্ধের অসাম্প্রদায়িক শুভ শক্তির কাছে স্বাধীনতাবিরোধী সাম্প্রদায়িক অশুভ শক্তি পরাজিত হবে।

শহীদ বুদ্ধিজীবীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাদের বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী আপামর জনতা আজ শ্রদ্ধাভরে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মরণ করছে।

তিনি বলেন, বিজয়ের মাত্র দু’দিন আগে পাক হানাদার বাহিনী দেশের কতিপয় কুলাঙ্গারদের সহায়তায় দেশকে মেধাহীন করার ঘৃণ্য উদ্দেশ্যে জাতির শ্রেষ্ঠ বুদ্ধিজীবীদের হত্যা করেছিল।

১৯৭১ সালে এই দিনে বাঙালি জাতিকে মেধাশূন্য করতে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের একের পর এক হত্যা করে পাকিস্তানি বাহিনী ও তাদের এদেশীয় দোসর আলবদর রাজাকাররা। শিক্ষক, সাহিত্যিক, চিকিৎসক, সাংবাদিক বেছে বেছে জাতির মেধাবী সন্তানদের হত্যা করে বর্বর কায়দায়।

মিরপুর বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা জানালেন প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রী

শহীদ বুদ্ধিজীবী উপলক্ষে প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মিরপুর বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন। আজ (শুক্রবার) সকাল সাতটায় প্রথমে প্রেসিডেন্ট ও পরে প্রধানমন্ত্রী শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রী বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে কিছু সময় নিরবতা পালন করেন। এ সময় তোপধ্বনি ও বিউগলের করুণ সুর বেজে ওঠে। এর পরেপরেই সর্বস্তরের মানুষ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। শ্রদ্ধা জানান শহীদ বুদ্ধিজীবী ও মুক্তিযোদ্ধার পরিবারের সদস্যরাও। বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন ছাড়াও রাজধানীর স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরাও আসেন শ্রদ্ধা জানাতে।#

পার্সটুডে/ আশরাফুর রহমান/১৪

খবরসহ আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত সব লেখা ফেসবুকে পেতে এখানে ক্লিক করুন এবং নোটিফিকেশনের জন্য লাইক দিন

ট্যাগ

মন্তব্য