২০১৯-০২-১৮ ১৮:৫৮ বাংলাদেশ সময়

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা আবারো দাবি করেছেন, ‘সংসদ নির্বাচন রেকর্ডে রাখার মতো সুষ্ঠু ও সুন্দর পরিবেশে হয়েছে। ঢাকা সিটি করপোরেশন ও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনেও একই ধরনের পরিবেশে দেখতে চাই।’

আজ (সোমবার) ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র পদে উপ-নির্বাচন ও দুই সিটির ৩৬ কাউন্সিলর পদে নির্বাচন উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে বৈঠকে তিনি এ মন্তব্য করেন।

নূরুল হুদা বলেন, ‘আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের সার্বিক সহযোগিতা ছিল বলেই নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ করা সম্ভব হয়েছিল। আগামী উপজেলা পরিষদ ও সিটি করপোরেশন নির্বাচনেও সংসদ নির্বাচনের মতো পরিবেশ অব্যাহত থাকবে।’ 

প্রধান নির্বাচন কমিশনার সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে বলেছেন, নির্বাচন যাতে অবাধ এবং গ্রহণযোগ্য হয় সেদিকে সবাইকে সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে। নির্বাচন যেন প্রশ্নবিদ্ধ না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। নির্বাচনে সার্বিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ রাখতে হবে।

এ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, তারা একটি সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানে ইসিকে সহায়তা করবে। 

এদিকে বিএনপি অভিযোগ করেছে, সিইসি জাতীয় নির্বাচনের মতোই উপজেলা নির্বাচন অনুষ্ঠানের ঘোষণা দিয়ে এটাই জানান দিচ্ছে যে, তারা উপজেলা বা সিটি নির্বাচনে একইরকম ভোট ডাকাতির মহোৎসব করবে।

রোববার নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এমন মন্তব্য করেন।

আসন্ন উপজেলা নির্বাচনে বিএনপির কোনো নেতাকর্মী অংশ নিতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন দলটির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। দলের সিদ্ধান্ত না মানলে তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও সতর্ক তিনি।

ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদের সভাপতিত্বে নির্বাচন কমিশনে অনুষ্ঠিত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে আজকের সভায় ইসির চারজন  কমিশনার, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং বিভিন্ন বাহিনীর উর্ধতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।#

পার্সটুডে/আবদুর রহমান খান/আশরাফুর রহমান/১৮

খবরসহ আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত সব লেখা ফেসবুকে পেতে এখানে ক্লিক করুন এবং নোটিফিকেশনের জন্য লাইক দিন  

ট্যাগ

মন্তব্য