২০১৯-০৩-১৬ ০১:৪২ বাংলাদেশ সময়
  • প্রো-ভিসির আশ্বাসে অনশন ভাঙলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) পুনর্নির্বাচনের দাবিতে অনশনরত শিক্ষার্থীরা প্রো-ভিসি অধ্যাপক মুহাম্মদ সামাদের আশ্বাসে অনশন ভেঙেছেন। শুক্রবার মধ্যরাত ১২টার দিকে লাচ্ছি ও পানি পানের মধ্য দিয়ে তারা এই কর্মসূচির ইতি টানেন বলে জানিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক এ এস এম মাকসুদ কামাল।

এর আগে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক মাকসুদ কামাল, প্রক্টর গোলাম রব্বানী, ডাকসুর ভিপি নুরুল হক, জিএস গোলাম রাব্বানী, এজিএস সাদ্দাম হোসেন টিএসসির রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে অনশন ভাঙাতে আসেন

এসময় শিক্ষার্থীরা তাদের দাবি-দাওয়া তুলে ধরেন। ভিপি নুরুল হক বলেন, আমি জানি নির্বাচনে কারচুপি হয়েছে। কারচুপি করার ফলে মৈত্রী হলের প্রাধ্যক্ষকে অপসারণ করা হয়েছে। রোকেয়া হলের প্রাধ্যক্ষকে অপসারণ করার ব্যাপারে একমত। আমি আপনাদের সঙ্গে আছি, আপনাদের সঙ্গে থাকব। আজ আকাশের অবস্থা ভালো না। আপনারা অনশন ভাঙুন

শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক এএসএম মাকসুদ কামাল অনশনরত শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেন, তোমাদের দাবিগুলো আমরা শুনব। স্বচ্ছতার কোনো শেষ নেই। পরবর্তীতে আমরা আরো গুরুত্ব দেবো

এসময় প্রো-ভিসি অধ্যাপক মুহাম্মদ সামাদ ১৮ মার্চ শিক্ষার্থীদের সঙ্গে বৈঠকের আশ্বাস ও অভিযোগগুলো নিয়ে প্রধান রিটার্নিং অফিসারে সঙ্গে আলোচনা করার কথা বলেন

তিনি বলেন, তোমাদের সব অভিযোগ আমরা শুনব। আমরা চাই আগামীতে আরো সুন্দর নির্বাচন উপহার দিতে। তবে আমি আবারো বলছি এবার যা ঘটেছে তার দায় প্রশাসন এড়াতে পারে না। আমি চাই তোমাদের সঙ্গে আলোচনা করে সব সমস্যার সমাধান করতে। আমি তোমাদের অনশন ভাঙাতে জোর করব না। তবে আমি চাইব তোমরা আমার কথা শুনবে এবং আমরা সবাই মিলে আলোচনা করে সব সমস্যার সমাধান করব 

এসময় তাঁর অনুরোধে সাড়া দেন চার দিন ধরে অনশনকারী শিক্ষার্থীরা।

অনশনকারী শিক্ষার্থীদের একজন পপুলেশন সায়েন্স বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের মো. মাঈন উদ্দিন বলেন, “আগামী সোমবার প্রশাসন আমাদের সঙ্গে বসবে বলেছে। তারা আমাদের আশ্বস্ত করেছেন, আমাদের দাবি-দাওয়া মেনে নেবেন। এরপরে আমরা অনশন ভেঙেছি। দাবি না মানলে প্রয়োজনে আবার অনশনে বসব।”

পুনর্নির্বাচনের দাবিতে ক্যাম্পাসে ভুখা মিছিল

এর আগে গতকাল বিকেল ৪টায় ডাকসু পুনর্নির্বাচনের দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ভুখা মিছিল করেছেন শিক্ষার্থীরা। সন্ত্রাসবিরোধী রাজু ভাস্কর্যের সামনে থেকে আমরণ অনশনরত ছয় শিক্ষার্থী ও তাদের অনুসারীরা এ মিছিল শুরু করে ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করেন।

মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয়ের রোকেয়া হলের সামনে আসলে শোয়েব মাহমুদ নামে অনশনরত এক শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

ডাকসুর পুননির্বাচনের দাবিতে গতকাল পর্যন্ত অন্তত ১২ জন শিক্ষার্থী আমরণ অনশন করে আসছিলেন। পরবর্তীতে রোকেয়া হলের পাঁচ শিক্ষার্থী একদিনের জন্য তাদের অনশন ত্যাগ করেন।   

গত ১১ মার্চ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বহু প্রতীক্ষিত ডাকসু ও হল সংসদের নির্বাচন হয়। ভোটের দিন কুয়েত-মৈত্রী হলে বস্তাভর্তি ব্যালট উদ্ধার ও রোকেয়া হলে গণ্ডগোলের মধ্যে ভোট বর্জনের ঘোষণা দেয় পাঁচটি প্যানেল। নির্বাচনের ফল বাতিল করে ডাকসু নির্বাচনের পুনঃতফসিল ও রোকেয়া হলের ঘটনায় করা মামলা প্রত্যাহারের দাবি নিয়ে ভোটের পরদিন সন্ধ্যা ৬টায় টিএসসির রাজু ভাস্কর্যের সামনে অনশন শুরু করেন ছয় শিক্ষার্থী। এরপর অনশনে অসুস্থ হওয়ার পর তাদের কয়েকজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আবার নতুন করে অনশনে যোগ দেন বেশ কয়েকজন।#

পার্সটুডে/আশরাফুর রহমান/১৬

 

ট্যাগ

মন্তব্য