২০১৯-০৩-২১ ২২:৫৮ বাংলাদেশ সময়
  • ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া
    ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া

বাংলাদেশের রাজধানীর সড়কে শৃংখলা রক্ষা করতে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) এবং সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ব্যর্থ হয়েছে বলে মন্তব্য করছেন ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া।

বৃহস্পতিবার ঢাকার গুলিস্তানে মহানগর নাট্যমঞ্চে ট্রাফিক সচেতনতায় এক মতিবিনিময় সভায় তিনি বলেন, “মেধাবী ছাত্র আবরারের মৃত্যু আমাদের চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে, আমরা রাস্তায় শৃঙ্খলা রক্ষা করতে পারিনি। অস্বীকার করার কোনো পথ নেই- ঢাকা শহরে পরিবহন ব্যবস্থায় শৃঙ্খলা আনতে আমরা ব্যর্থ হয়েছি। আমি কারো ঘাড়ে দোষ দিবো না। কিন্তু, অভারঅল বলবো ঢাকা শহরে পরিবহন ব্যবস্থায় শৃঙ্খলা আনতে আমরা ব্যর্থ হয়েছি। এবং এই ব্যর্থতার দায়ভার আমরা কেউ এড়াতে পারি না। এই দায়িত্ব আমাদের নিতে হবে। সবাই দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিয়ে কাজ করলে এমন অনাকাঙ্ক্ষিত দুর্ঘটনা দেখতে হতো না।”

ডিএমপি কমিশনার জানান, বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) শিক্ষার্থীকে হত্যাকারী সুপ্রভাত পরিবহনের ঢাকা-ব্রাহ্মণবাড়িয়া মহাসড়কে চলাচলের অনুমতি ছিল। কিন্তু মালিকরা অবৈধভাবে ঢাকায় এটি পরিচালনা করে।

আছাদুজ্জামান বলেন, “বর্তমানে বাস মালিকরা চালকদের সঙ্গে দৈনিক চুক্তিতে গাড়ি নামান এবং সড়ক দুর্ঘটনার পেছনে প্রধান কারণ বাসের হেলপাররা। কোনো মালিক ড্রাইভারকে এমন চুক্তিভিত্তিক গাড়ি দিতে পারবে না।”

 আবরার আহমেদ চৌধুরী

তিনি বলেন, "রংচটা, ফিটনেসবিহীন ও মডেল আউট কোনো গাড়ি যাতে শহরে না চলে সে বিষয়ে পদক্ষেপ নেয়া হবে। আমরা ফিটনেসবিহীন গাড়ির বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান জোরদার করব।”

ডিএমপি কমিশনার জানান, “জাবালে নূর এবং সুপ্রভাত পরিবহনের রুট পারমিট ইতিমধ্যেই বাতিল করা হয়েছে। ওই দুই বাস কোম্পানিকে বৈধ এবং ফিটনেস সম্পর্কিত সকল কাগজপত্র সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে জমা দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।”

আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, শুধুমাত্র যেসব বাসের ফিটনেস এবং বৈধ কাগজপত্র রয়েছে সেগুলোকেই ঢাকা শহরে চলাচলের অনুমোদন দেয়া হবে।

মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার প্রধান ফটকের সামনে সুপ্রভাত পরিবহনের একটি বাস আবরার আহমেদ চৌধুরীকে ধাক্কা দিলে তিনি ঘটনাস্থলেই নিহত হন। পরে নিরাপদ সড়কের দাবিতে নতুন করে আন্দোলনে নামে শিক্ষার্থীরা আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ না করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, “এতে লাখ লাখ মানুষ দুর্ভোগে পড়েন। দায়িত্ববান হও, এবং তোমরা ক্লাসে ফিরে যাও ও নিজের কাজে মনোযোগী হও। আমরা চালককে গ্রেপ্তার করেছি এবং বাসটি জব্দ করেছি।”

শাজাহান খান

এদিকে, বাসচাপায় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী আবরার আহমেদ চৌধুরীর মৃত্যুতে দুঃখপ্রকাশ করে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের কার্যকরী সভাপতি শাজাহান খান বলেছেন, এ ঘটনায় দায়ী ব্যক্তিকে আইনের আওতায় আনলে মালিক-শ্রমিকদের কোনো আপত্তি থাকবে না।

তবে দুর্ঘটনার জন্য ‘চালক একা দায়ী নয়’ মন্তব্য করে এর পেছনের অন্যান্য কারণগুলোর ওপর নজর দেওয়ার ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন সড়ক পরিবহন খাতে শৃঙ্খলা আনা এবং দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে সুপারিশ প্রণয়নের জন্য গঠিত কমিটির প্রধান শাজাহান খান।#

পার্সটুডে/আশরাফুর রহমান/২১

 

ট্যাগ

মন্তব্য