• পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়
    পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, কেন্দ্রীয় সরকারের চোখ রাঙানি সহ্য করবো না। আজ (বুধবার) তিনি পশ্চিমবঙ্গের বাঁকুড়ায় এক জনসমাবেশে ভাষণ দেয়ার সময় ওই মন্তব্য করেন।

মমতা বলেন, "দিল্লির সরকার ও বিজেপির কয়েকজন নেতা কেবল বড় বড় কথা বলে। 'নেই কাজ তো খই ভাজ’। ওরা বড় বড় কথা বলছে। দিল্লিতে পড়ে আছো। কিন্তু গুজরাটে যদি দলিত অথবা আদিবাসী বিচিত্রানুষ্ঠান দেখতে যায় তাহলে তাদের পিটিয়ে হত্যা করা হয়। যদিও বাংলা তাকে আদর করে। বাংলা তাকে ভালোবাসে। বাংলায় এ ধরণের জিনিস নেই। আমরা সকলেই সমান।" 

তিনি বলেন,  "কেন্দ্রীয় সরকারের খাদ্য দফতর বলে দিয়েছে ‘আমরা চাল দিতে পারব না’। তোমার দেয়ার দরকার নেই! আমার ঘরে যে চাল আছে আমি তাই দিয়ে ‘মিড ডে মিল’ খাওয়াব। কিন্তু তোমার চোখ রাঙানি সহ্য করব না। বাংলাকে ভাতে মেরে কোনো লাভ নেই। বাংলার ঘরে ঘরে ভাত তৈরি হয়। আমরা ভাত তৈরি করি, ভাত ফলাই।"

সংখ্যালঘু উন্নয়ন প্রসঙ্গে মমতা বলেন, "সংখ্যালঘু ভাই-বোনেদের ১ কোটি ৭১ লাখ ছেলে-মেয়ে স্কলারশিপ পেয়েছেন; গোটা ভারতের মধ্যে যা প্রথম। বাংলায় ৩১ শতাংশ সংখ্যালঘু মানুষ বাস করে। ২৩.৯ শতাংশ তপশিলি, ৬.৫ শতাংশ আদিবাসী মানুষ বাস করে, তাদের বাদ দিয়ে আমি কীভাবে চলব? তাদের নিয়ে আমায় চলতে হবে। আমরা মানুষ- এটা আমাদের পরিচয়।"

তপশিলি, আদিবাসী, সংখ্যালঘু, খ্রিস্টান, হিন্দু, বৌদ্ধ, জৈন, শিখদের ভালোবাসতে হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

বিজেপিকে ইঙ্গিত করে উপস্থিত জনতার উদ্দেশে তিনি বলেন, "আপনারা মনে রাখবেন যারা মানুষের মধ্যে ‘ভাগাভাগি’ করে তারা দেশকে ভালোবাসে না। তারা রাজ্যকে ভালোবাসে না। যারা ভাগাভাগি করে না তারাই আসল মানুষ।"

বিজেপি শাসিত রাজস্থানে শ্রমিকের কাজ করতে গিয়ে যেভাবে নৃশংস হামলায় আফরাজুল খানকে হত্যা করা হয়েছে মমতা আজও সেই প্রসঙ্গ টেনে পরোক্ষভাবে বিজেপির তীব্র সমালোচনা করেন।  

মমতা বলেন, ‘সব ধর্ম, সব মত, সব মানুষকে নিয়ে আমাদের বৃহত্তর মানব সংসার। এই মানব সংসারে আমরা কাউকে জ্বালিয়ে মারি না, আমরা কাউকে পুড়িয়ে মারি না।’ #

পার্সটুডে/এমএএইচ/এআর/১৩

 

ট্যাগ

২০১৭-১২-১৩ ১৬:৪৬ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য