• তাৎক্ষণিক ৩ তালাকে ৩ বছরের জেল: ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা

তাৎক্ষণিক তিন তালাককে ফৌজদারী অপরাধ উল্লেখ করে ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা আজ একটি বিল অনুমোদন করেছে। মুসলিম ইউমেন (‌প্রোটেকশন অব রাইটস অন ম্যারেজ)‌ বিল, ২০১৭–র খসড়ায় বলা হয়েছে, তিন তালাক আদালতের বিচার্য এবং জামিন অযোগ্য অপরাধ। দোষী প্রমাণিত হলে তিন বছর কারাদণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে। 

আজ থেকে সংসদের শীতকালীন অধিবেশন শুরু হয়েছে। এই অধিবেশনেই বিলটি পাস হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

গত ২২ আগস্ট প্রধান বিচারপতি জগদিশ সিং খেহরের নেতৃত্বাধীন সুপ্রিম কোর্টের পাঁচ সদস্যের বিচারপতির সমন্বিত বেঞ্চ তিন তালাকের ওপর ছয় মাসের জন্য নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। আদালত একইসঙ্গে কেন্দ্রীয় সরকারকে এ নিয়ে আইন তৈরির নির্দেশ দেয়। এরপরেই সরকার বিলের খসড়া তৈরি করে ১ ডিসেম্বর মতামতের জন্য রাজ্যগুলোর কাছে পাঠায়। ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে তার জবাব দিতে বলা হয়েছিল। এরইমধ্যে অসম, ঝাড়খণ্ড, মধ্যপ্রদেশ, মহারাষ্ট্র, মণিপুর, উত্তরপ্রদেশ এবং উত্তরাখণ্ড খসড়া বিল সমর্থন করে চিঠি দিয়েছে।

নরেন্দ্র মোদি ও অমিত শাহ

আদালতের রায়ের প্রতিক্রিয়ায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছিলেন, এরফলে মুসলিম নারীরা সমান অধিকার পাবেন। আর বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ একে মুসলিম নারীদের জন্য 'নয়া যুগের সূচনা' বলে মন্তব্য করেন। 

তবে, মুসলিম পাসোর্নাল ল' বোর্ড, জামায়াতে ইসলামী হিন্দ, জমিয়তে উলামায়ে হিন্দসহ বিভিন্ন সংগঠন সুপ্রিম কোর্টের রায়ে তীব্র আপত্তি জানিয়ে বলছে, প্রায় দেড় হাজার বছর থেকে ইসলামে তিন তালাক প্রথা চালু রয়েছে। সুপ্রিম কোর্টের রায় শরিয়া আইনের বিরোধী। একে 'হিন্দু-মুসলিম বিভাজনের চেষ্টা' বলেও কেউ কেউ মন্তব্য করেছিলেন।#

 পার্সটুডে/আশরাফুর রহমান/১৫

ট্যাগ

২০১৭-১২-১৫ ১৯:২৫ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য