• জম্মু-কাশ্মিরে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে ১ গেরিলা নিহত, কারফিউ জারি

ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মিরে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে এক গেরিলা নিহত হয়েছে। উত্তর কাশ্মিরের কান্দি বনভূমি এলাকা থেকে আজ (বৃহস্পতিবার) অজ্ঞাত ওই গেরিলার লাশ উদ্ধার হয়েছে। অন্যদিকে, গতকাল (বুধবার) একই এলাকায় বন্দুকযুদ্ধে নিরাপত্তা বাহিনীর এক প্যারা-কম্যান্ডো নিহত হয়েছেন।

সেনাবাহিনীর এক কর্মকর্তা আজ বলেন, গতকাল সন্ধ্যায় বন্দুকযুদ্ধে এক সন্ত্রাসী নিহত হয়। আজ সকালে কান্দি এলাকায় তল্লাশি অভিযান চালানোর সময় তার লাশ উদ্ধার হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে একে-৪৭ রাইফেল ও গুলি উদ্ধার হয়েছে। তাকে শনাক্ত করার চেষ্টা চলছে।

এদিকে, উত্তর কাশ্মিরের কুপওয়াড়া কান্দি বনভূমি এলাকায় নিরাপত্তা বাহিনী ও গেরিলাদের মধ্যে চলমান সংঘর্ষে গতকাল মুকুল মীনা নামে এক প্যারা কমান্ডো গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত এবং অন্য এক জওয়ান আহত হয়।   

এদিকে, গতকাল (বুধবার) রাতে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে কুপওয়াড়া জেলার ত্রেহগাম এলাকায় এক তরুণ নিহত হওয়ায় আজ (বৃহস্পতিবার) সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে ওই এলাকায় কারফিউ জারি করার পাশাপাশি মোবাইলে ইন্টারনেট পরিসেবা স্থগিত করা হয়েছে। এছাড়া জেলার সমস্ত স্কুল, কলেজ বন্ধ রাখা হয়েছে। নিরাপত্তা বাহিনীর পক্ষ থেকে সমস্ত সড়ক ‘সিল’ করে দেয়া হয়েছে।    

গতকাল রাত আটটা নাগাদ স্থানীয় তরুণরা সেনাবাহিনীর গাড়িবহরে পাথর নিক্ষেপ করলে নিরাপত্তা বাহিনী পাল্টা গুলিবর্ষণ করে। ওই ঘটনায় দুই তরুণ আহত হন। এদের মধ্যে খালিদ গফফার (২০) নামে আহত এক তরুণকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। তার মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়তেই সংশ্লিষ্ট এলাকার মানুষজন বিক্ষোভে ফেটে পড়েন। রাত ১০ টা নাগাদ নিহত খালিদের লাশ তার বাসায় পৌঁছায়। আজ সকালে ত্রেহগামে কয়েক হাজার মানুষ তার জানাজায় উপস্থিত ছিলেন। এসময় উপস্থিত প্রতিবাদী জনতা সরকার বিরোধী ও স্বাধীনতাকামী স্লোগান দেয়াসহ ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে সুবিচার দেয়ার দাবিতে সোচ্চার হন। #

পার্সটুডে/এমএএইচ/এআর/১২   

২০১৮-০৭-১২ ১২:৩৬ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য