• পাকিস্তানি স্নাইপারের গুলিতে ৩ দিনে ৩ ভারতীয় সেনা নিহত

জম্মু-কাশ্মিরের ভারত-পাক সীমান্তে পাকিস্তানি স্নাইপারের গুলিতে গতকাল (রোববার) এক ভারতীয় সেনাসদস্য নিহত হয়েছেন। জম্মুর নৌসেরা সেক্টরে নায়েক গোসাভি কেশব সোমগীর (২৯) নামে ওই জওয়ান গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হন। তাঁকে দ্রুত নিকটবর্তী সেনা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে তিনি মারা যান। এনিয়ে গত তিন দিনে ভারত-পাক সীমান্তে স্নাইপারের গুলিতে তিন ভারতীয় সেনার মৃত্যু হল।

ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র বলেন, “পাকিস্তানি সেনারা বিনা প্ররোচনায় নৌসেরা সেক্টরে বিকেল পৌনে তিনটা নাগাদ গুলিবর্ষণ শুরু করে। এরফলে সীমান্তের ওপার থেকে আসা গুলিতে সোমগীর গুরুতরভাবে আহত হন এবং পরে তিনি মারা যান। দশ বছর ধরে সেনাবাহিনীতে সেবা প্রদান করা সোমগীরের আত্মত্যাগ ব্যর্থ হবে না।”

গত শনিবারও একইভাবে পাকিস্তানি স্নাইপারের গুলিতে বিএসএফের এক জওয়ান নিহত হয়েছিলেন। সুন্দেরবানি এলাকায় ওই হামলার ঘটনায় বরুণ কাত্তাল (২১) নামে বিএসএফের রাইফেলম্যান নিহত হন। এরপরে দু’দেশের সেনাবাহিনীর মধ্যে পাল্টাপাল্টি গুলিবর্ষণ শুরু হলে বিএসএফের দুই জওয়ান আহত হয়।

গত শুক্রবার আখনুর সেক্টরেও পাকিস্তানি স্নাইপারের গুলিতে সেনাবাহিনীর এক জওয়ান নিহত হয়েছিলেন।

অন্যদিকে, তথ্য জানার অধিকার আইনে (আরটিআই অ্যাক্ট) এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তথ্য সূত্রে প্রকাশ, এনিয়ে চলতি বছরের প্রথম সাত মাসে নিয়ন্ত্রণরেখা ও আন্তর্জাতিক সীমান্তে জম্মু-কাশ্মির রাজ্যে পাকিস্তান ১ হাজার ৪৩৫ বার যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করেছে। এরফলে ৫২ জন নিহত ও ২৩২ জন আহত হয়েছেন।

এসকল ঘটনায় ১২ জন সেনাসদস্য, ১২ জন বিএসএফ জওয়ান এবং ২৮ জন বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছেন। এছাড়া ১৪০ জন বেসামরিক নাগরিক, ৪৫ সেনাসদস্য ও ৪৭ জন বিএসএফ জওয়ান আহত হন।#

পার্সটুডে/এমএএইচ/এআর/১২

ট্যাগ

২০১৮-১১-১২ ১১:০১ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য