• বক্তব্য রাখছেন বাবরী মসজিদ অ্যাকশন কমিটির চেয়ারম্যান আতাউর রহমান
    বক্তব্য রাখছেন বাবরী মসজিদ অ্যাকশন কমিটির চেয়ারম্যান আতাউর রহমান

ভারতের উত্তর প্রদেশের অযোধ্যায় ঐতিহাসিক বাবরী মসজিদ ধ্বংসের বার্ষিকীতে মুসলিমদের একাংশ দিনটিকে 'কালো দিবস' হিসেবে পালন করছেন। অন্যদিকে, হিন্দুত্ববাদী দল ও সংগঠনের পক্ষ থেকে দিনটিকে 'শৌর্য দিবস' হিসেবে পালন করা হচ্ছে।

১৯৯২ সালের ৬ ডিসেম্বর প্রকাশ্য দিবালোকে করসেবক নামধারী উগ্র হিন্দুত্ববাদী ধর্মান্ধরা কয়েকশ’ বছরের পুরোনো বাবরী মসজিদ ভেঙে গুঁড়িয়ে দিয়েছিল।

বাবরী মসজিদ ধ্বংসের ২৬তম বার্ষিকীতে উত্তর প্রদেশের সংশ্লিষ্ট জেলায় আগে থেকেই ১৪৪ ধারা কার্যকর রয়েছে। বিভিন্ন এলাকার নিরাপত্তা কমান্ড ম্যাজিস্ট্রেটদের হাতে হস্তান্তর করাসহ নিরন্তর যানবাহনে তল্লাশি অভিযান চালানো  হচ্ছে। গোটা এলাকার নিরাপত্তা বজায় রাখতে ৬  কোম্পানি পিএসি, ২ কোম্পানি র‍্যাফ, ৪ জন অতিরিক্ত এসপি, ১০ জন ডেপুটি এসপি, ১০ ইন্সপেক্টর,  দেড়শ’  উপ-পরিদর্শক, ৫০০ কনস্টেবল, ডগ স্কোয়াড, বোমা স্কোয়াড এবং গোয়েন্দা বিভাগের দল গঠন করা হয়।

বাবরী মসজিদ অ্যাকশন কমিটির চেয়ারম্যান আতাউর রহমান বলেছেন, ‘অযোধ্যায় মসজিদ ছিল এবং তা থাকবে। ১৯৯২ সালের ৬ ডিসেম্বর সংবিধানের রক্ষকদের সামেই বাবরী মসজিদ শহীদ করা হয়েছিল। বাবরী মসজিদ পুনর্নির্মাণের প্রয়াস অব্যাহত থাকবে। আমাদের আন্দোলন কোনও সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে নয় বরং তা ধর্মীয় স্বাধীনতা পাওয়ার জন্য। কোনো দল বা সম্প্রদায়ের লোকেদের যদি আইনের ঊর্ধ্বে থাকার ছাড় দেয়া হয় তাহলে দেশের  নিরাপত্তা ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির কোনো  অর্থ থাকে না। এ নিয়ে মামলা বিচারাধীন থাকা সত্ত্বেও কিছু লোক নানা বিবৃতি দিয়ে দেশের পরিবেশ খারাপ করছে।’

৬ ডিসেম্বর কালো দিবস পালনসহ এদিন বিভিন্ন মসজিদে দোয়া-এ-কুনুতে নাজেলা পাঠ করা হবে বলেও তিনি বলেন।

বাবরী মসজিদের অন্যতম বাদী ইকবাল আনসারি

এদিকে, বাবরী মসজিদের অন্যতম বাদী ইকবাল আনসারিকে পুনরায় প্রাণনাশের হুমকি সম্বলিত চিঠি দেয়া হয়েছে। বাবরী মসজিদ মামলা প্রত্যাহার করা না হলে তাঁকে হত্যার হুমকি দেয়া হয়েছে। চিঠিতে বলা হয়েছে, অযোধ্যায় ভগবান রামের মন্দির নির্মাণ করা হবে। মুসলিমদের ওই জায়গার দাবি ছেড়ে দিতে হবে। ইকবাল আনসারি যদি দাবি না ছেড়ে দেন তাহলে তাঁকে হত্যা করা হবে বলে হুমকি দেয়া হয়েছে। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তিনি ওই চিঠি পাওয়ার পরে তা পুলিশকে জানিয়েছেন। রাম জন্মভূমি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা প্রদ্যুম্ন সিং বলেছেন বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করা হয়েছে। ইকবাল আনসারিকে এর আগেও এ ধরণের হুমকি দিয়ে চিঠি পাঠানো হলে তাঁর পুলিশি নিরাপত্তা বৃদ্ধি করা হয়েছে।#

পার্সটুডে/এমএএইচ/এআর/৬ 

খবরসহ আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত সব লেখা ফেসবুকে পেতে এখানে ক্লিক করুন এবং নোটিফিকেশনের জন্য লাইক দিন

ট্যাগ

২০১৮-১২-০৬ ১৯:২৯ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য