২০১৮-১২-১২ ১৪:৪৯ বাংলাদেশ সময়
  • বিএসপি নেত্রী মায়াবতীর সঙ্গে সোনিয়া গান্ধী, পাশে রাহুল
    বিএসপি নেত্রী মায়াবতীর সঙ্গে সোনিয়া গান্ধী, পাশে রাহুল

ভারতে পাঁচটি রাজ্য বিধানসভা নির্বাচনে হিন্দুত্ববাদী বিজেপি শোচনীয়ভাবে পরাজিত হয়েছে। পক্ষান্তরে তিনটি রাজ্যে প্রধান বিরোধীদল কংগ্রেস ক্ষমতায় ফিরে আসছে। অন্য দু’টিতে সেখানকার আঞ্চলিক দল ক্ষমতায় আসছে।

গতকাল (মঙ্গলবার) রাজস্থান, মধ্য প্রদেশ, ছত্তিসগড়, তেলেঙ্গানা ও মিজোরাম বিধানসভা নির্বাচনের ভোট গণনা হয়। ছত্তিসগড়ে ৯০টি আসনের মধ্যে কংগ্রেস ৬৮, বিজেপি ১৫, বহুজন সমাজ পার্টি (বিএসপি) ২, জনতা কংগ্রেস ছত্তিশগড় ৫ টি আসনে জয়ী হয়েছে।

ছত্তিশগড়ে শতাংশের হিসাবে কংগ্রেস ৪৩ শতাংশ, বিজেপি ৩৩ শতাংশ, বিএসপি ৩.৯ শতাংশ এবং জনতা কংগ্রেস ছত্তিশগড় ৭.৬ শতাংশ ভোট পেয়েছে। রাজ্যটিতে বিজেপি ক্ষমতায় ছিল, এবার সেখানে কংগ্রেস সরকার গড়তে চলেছে।  

চিন্তিত নরেন্দ্র মোদি

মধ্য প্রদেশে ২৩০ আসনের মধ্যে কংগ্রেস ১১৪, বিজেপি ১০৯, বিএসপি ২, এসপি ১ এবং নির্দলীয় ৪ টি আসন পেয়েছে।

মধ্য প্রদেশে শতাংশের হিসাবে কংগ্রেস ৪০.৯ বিজেপি ৪১, বিএসপি ৫ এবং নির্দলীয় ৫.৮ শতাংশ ভোট পেয়েছে। রাজ্যটিতে বিজেপি ক্ষমতায় ছিল। এবার সেখানে কংগ্রেস সরকার গড়তে চলেছে।

কংগ্রেস সমর্থকদের উল্লাস

মিজোরামে ৪০ আসনের মধ্যে মিজো ন্যাশনাল ফ্রন্ট (এমএনএফ)২৬, কংগ্রেস ৫, বিজেপি ১, নির্দলীয় ৮টি আসনে জয়ী হয়েছে।

মিজোরামে শতাংশের হিসাবে এমএনএফ ৩৭.৬ কংগ্রেস ৩০.২ বিজেপি ৮ এবং নির্দলীয় ২২.৯ শতাংশ ভোট পেয়েছে। রাজ্যটিতে কংগ্রেস ক্ষমতায় ছিল। এবার সেখানে এমএনএফ সরকার গড়তে চলেছে।  

রাজস্থানে ১৯৯ আসনের মধ্যে কংগ্রেস ৯৯, বিজেপি ৭৩, বিএসপি ৬, বিটিপি ২, আরএলডি ১, আরএলটিপি ৩ এবং নির্দলীয় ১৩ আসনে জয়ী হয়েছে।

রাজস্থানে শতাংশের হিসাবে কংগ্রেস ৩৯.৩ শতাংশ, বিজেপি ৩৮.৮ শতাংশ, বিএসপি ৪ শতাংশ এবং নির্দলীয় ৯.৫ শতাংশ ভোট পেয়েছে। রাজ্যটিতে বিজেপি ক্ষমতায় ছিল। এবার সেখানে কংগ্রেস সরকার গড়তে চলেছে। 

তেলেঙ্গানাতে ১১৯ আসনের মধ্যে তেলেঙ্গানা রাষ্ট্রীয় সমিতি (টিআরএস) ৮৮, কংগ্রেস ১৯, বিজেপি ১, মজলিশ-ই-ইত্তেহাদুল মুসলেমিন (মিম) ৭, তেলেগু দেশম ২, ফরোয়ার্ড ব্লক ১ এবং নির্দলীয় ১ আসনে জয়ী হয়েছে।

তেলেঙ্গানাতে শতাংশের হিসাবে টিআরএস ৪৬.৯ শতাংশ, কংগ্রেস ২৮.৪ শতাংশ, বিজেপি ৭ শতাংশ, তেলেগু দেশম ৩.৫, মিম ২.৭ শতাংশ এবং নির্দলীয় ৩.৩ শতাংশ ভোট পেয়েছে।  

তেলেঙ্গানাতে তেলেঙ্গানা রাষ্ট্রীয় সমিতি (টিআরএস) ক্ষমতায় ছিল। তারাই পুনরায় সরকার গড়তে চলেছে।

পাঁচ রাজ্যের ফল প্রকাশের মধ্য দিয়ে দেখা যাচ্ছে এসব রাজ্যের সাধারণ মানুষ হিন্দুত্ববাদী বিজেপিকে প্রত্যাখ্যান করেছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, বিজেপি’র ফায়ারব্র্যান্ড নেতা যোগি আদিত্যনাথ ও বিজেপির অন্য নেতারা  নানাভাবে ধর্মীয় মেরুকরণ করে ফায়দা লাভের চেষ্টা করেও চরমভাবে ব্যর্থ হয়েছেন। পাঁচ রাজ্যের ফলের প্রভাব আগামী ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের সময় পড়বে এবং কেন্দ্রীয় সরকার থেকে বিজেপির পতন নিশ্চিত হবে বলে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করছেন।#

পার্সটুডে/এমএএইচ/এআর/১২      

 

 

ট্যাগ

মন্তব্য