২০১৯-০২-১১ ২২:৪১ বাংলাদেশ সময়
  •  পশ্চিমবঙ্গ থেকে গুজরাটে গিয়ে শ্রমিকের অস্বাভাবিক মৃত্যু: পরিবারের দাবি ‘হত্যা’

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উত্তর ২৪ পরগণা জেলার গাইঘাটায় উত্তম সানা (৩২) নামে এক শ্রমিকের মৃতদেহ নিয়ে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে পরিবারের লোকজন ও তাঁর প্রতিবেশীরা। ভিন রাজ্যে কাজে গিয়ে ওই শ্রমিকের অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে।

পরিবারের দাবি, তাকে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা হত্যা করেছে। পুলিশ এ ব্যাপারে তদন্ত শুরু করেছে। ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে আজ (সোমবার) গাইঘাটা থানার চাঁদপাড়া এলাকায় স্থানীয় বাসিন্দারা বিক্ষোভ দেখান।      

পারিবারিক সূত্রে প্রকাশ, গাইঘাটার ধানকুনি এলাকার বাসিন্দা উত্তম সানা (৩২) পাঁচ মাস আগে গুজরাটে নির্মাণ শ্রমিকের কাজ করতে গিয়েছিলেন। বাড়ি ফিরবেন বলে গত মঙ্গলবার তিনি গুজরাট থেকে রওয়ানা হয়েছিলেন। কিন্তু গত (শনিবার) সকালে তাঁর মৃত্যু সংবাদ বাড়িতে পৌঁছায়। উড়িষ্যার রাজগণপুর এলাকায় রেললাইনের পাশ থেকে জিআরপি তাঁর মৃতদেহ উদ্ধার করে। গত বৃহস্পতিবার উত্তম সানা তাঁর মায়ের সঙ্গে শেষ কথা বলে তাঁকে মেরে ফেলা হতে পারে বলে আশঙ্কা করেছিলেন।

গতকাল (রোববার) রাতে তাঁর মৃতদেহ বাড়িতে পৌঁছলে পরিবারের মানুষজন তীব্র ক্ষোভে ফেটে পড়েন। স্থানীয়দের অভিযোগ, উত্তম সানা বিপদের আশঙ্কার কথা তাঁদের জানালে তাঁরা ঘাইঘাটা থানায় সাহায্যের জন্য আবেদন জানান। কিন্তু পুলিশ এ নিয়ে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা করেনি। যদিও পুলিশ ওই অভিযোগ অস্বীকার করেছে। উত্তম সানাকে খুন করা হয়েছে বলে গ্রামবাসী ও পরিবারের লোকজনের অভিযোগ।  

আজ (সোমবার) এ নিয়ে উপযুক্ত তদন্ত ও অপরাধীদের গ্রেফতারের দাবিতে মৃতের আত্মীয়স্বজন ও এলাকার মানুষজন চাঁদপাড়া এলাকায় যশোর রোডে মৃতদেহ রেখে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। ওই ঘটনায় ব্যস্ততম সড়কে যানচলাচল বিঘ্নিত হয়। ঢাকা-কোলকাতার মধ্যে চলাচলকারী নির্দিষ্ট বাসও যানজটে আটকে পড়ে। ঘটনাস্থলে গাইঘাটা থানার পুলিশ পৌঁছলে বিক্ষোভকারী ও পুলিশের মধ্যে ধস্তাধস্তি হয়। একপর্যায়ে বিক্ষোভকারীরা পুলিশকে ধাক্কা দিয়ে সরিয়ে দেয়। পরে অতিরিক্ত পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছে উপযুক্ত পদক্ষেপ নেয়ার আশ্বাস দিলে অবশেষে প্রায় দুই ঘণ্টা পর অবরোধ প্রত্যাহার করা হয়।#   

পার্সটুডে/এমএএইচ/এআর/১১

খবরসহ আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত সব লেখা ফেসবুকে পেতে এখানে ক্লিক করুন এবং নোটিফিকেশনের জন্য লাইক দিন 

ট্যাগ

মন্তব্য