২০১৯-০২-২৩ ২১:৩২ বাংলাদেশ সময়
  • অসমে বিষাক্ত মদ পানে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১০২

ভারতের বিজেপিশাসিত অসমে বিষাক্ত মদ পান করে মৃতের সংখ্যা ১০২ জনে পৌঁছেছে। এছাড়া সাড়ে তিনশ'র বেশি ব্যক্তি গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। ওই ঘটনায় অসমের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সনোয়াল, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, কগ্রেসের সভাপতি রাহুল গান্ধী ও অন্যরা শোক প্রকাশ করেছেন।

অসমের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সনোয়াল ওই ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দেয়ার পাশাপাশি মৃতদের প্রত্যেক পরিবারকে দুই লাখ এবং অসুস্থদের পরিবারকে এককালীন পঞ্চাশ হাজার টাকা করে অর্থসাহায্য দেয়ার কথা ঘোষণা করেছেন। এ ধরণের ঘটনার শিকার রাজ্যের মানুষ আর না হন সে ব্যাপারে রাজ্য সরকার পদক্ষেপ নেবে বলেও তিনি আশ্বাস দিয়েছেন।

গত বৃহস্পতিবার রাতে অসমের গোলাঘাট ও যোরহাট জেলায় বিষ মদ পান করে মৃত ও অসুস্থদের মধ্যে অধিকাংশই হলেন দরিদ্র চা শ্রমিক। গতকাল (শুক্রবার) বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পরে সংশ্লিষ্ট এলাকাগুলোতে গভীর শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

রাজ্যের আবগারি মন্ত্রী পরিমল শুক্ল বৈদ্য গোলাঘাটের আবগারি বিভাগের দুই কর্মকর্তাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত ও এনিয়ে তদন্তের কথা জানিয়েছেন।

গতকাল (শুক্রবার) বিধানসভায় বিরোধীদলীয় বিধায়করা ওই ঘটনায় সরকারের ব্যর্থতার বিরুদ্ধে সোচ্চার হলে সরকারপক্ষ আগামী সোমবার এ নিয়ে বিবৃতি দেবে বলে জানিয়েছে। রাজ্যে অবৈধ মদের প্রচলন বন্ধ করতে ব্যর্থ হওয়ার অভিযোগে আবগারি মন্ত্রী পরিমল শুক্ল বৈদ্যের অপসারণ দাবি করেছেন কংগ্রেসের চা উপজাতির বিধায়ক রূপজ্যোতি  কুর্মি। মৃতের সংখ্যা বাড়তে থাকায় আগামীদিনে রাজ্য সরকারের ওপরে বিরোধীদের চাপ বাড়বে বলে বিশ্লেষকরা মনে করছেন। এরইমধ্যে ওই  ঘটনায় অসমের বিজেপি সরকার বেশ অস্বস্তিতে পড়েছে। শাসকদলের বিধায়ক গুরুজ্যোতি দাস বিহারের মতো অসমকেও মদমুক্ত রাজ্য ঘোষণার দাবি তুলেছেন।#

পার্সটুডে/এমএএইচ/এআর/২৩  

খবরসহ আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত সব লেখা ফেসবুকে পেতে এখানে ক্লিক করুন এবং নোটিফিকেশনের জন্য লাইক দিন

ট্যাগ

মন্তব্য