২০১৯-০৩-১৫ ১৯:১৭ বাংলাদেশ সময়
  • তৃণমুল কংগ্রেসের মহিলা শাখার অবস্থান বিক্ষোভ
    তৃণমুল কংগ্রেসের মহিলা শাখার অবস্থান বিক্ষোভ

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কোলকাতায় বিজেপি’র বিরুদ্ধে 'অবস্থান বিক্ষোভ' কর্মসূচি পালন করেছে তৃণমূল মহিলা কংগ্রেস। বিজেপি বাংলাকে অপমান করছে এই অভিযোগে আজ (শুক্রবার) কোলকাতার ধর্না মঞ্চে রাজ্যের মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য ও মহিলা তৃণমূলের কর্মীরা ধর্না-বিক্ষোভ কর্মসূচিতে শামিল হন। আগামীকালও (শনিবার) তাদের ওই কর্মসূচি চলবে।

এদিন ধর্না মঞ্চে নারী প্রতিবাদকারীরা শান্ত বাংলাকে অশান্ত হতে দেবো না, অপমানের বিরুদ্ধে উপযুক্ত জবাব দিতে মানুষ তৈরি, চক্রান্তকারীরা হুঁশিয়ার ইত্যাদি বিভিন্ন লেখা সম্বলিত প্ল্যাকার্ড হাতে নিয়ে বিজেপির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানান।

রাজ্যের মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য বলেন, আমরা বেশ কিছুদিন ধরেই দেখছি বাংলার মানুষকে অপমান করছেন বিজেপির নেতৃত্ব। এবং বাংলার মাটিতে কিছু রাজনৈতিক দল যাদের কোনো অস্তিত্ব এখানে নেই। তারা কিছু করে নিজেদের অস্তিত্ব রাখতে চাচ্ছে একে অপরকে পিছন থেকে ঠেকা দিয়ে বাংলার মানুষকে অপমান করার চক্রান্ত করছে।

চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য

তিনি বলেন, আমরা দেখলাম কয়েকদিন আগে কেন্দ্রীয় সরকারের আইনমন্ত্রী ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী এদের নিয়ে একটা টিম নির্বাচন কমিশনের কাছে গিয়ে বাংলায় অতি স্পর্শকাতর বুথ হিসেবে প্রত্যেক বুথকে চিহ্নিত করার জন্য বলেছে। এখানে ৭৭ হাজার বুথ। আমাদের বিশ্বাস কেন্দ্রে যিনি আইনমন্ত্রী তিনি জানেন এ সম্পর্কিত আইনটা কী। ডিগ্রিটা কীসে মাপা হবে? ৭৭ হাজার বুথ যদি অতি স্পর্শকাতর হয় তাহলে এটা ধরে নিতে হবে যে, তারা বলছেন সারা বাংলাতে প্রত্যেকেই মারপিট করছেন। এটা তো বাংলার মানুষকে অপমান করা। এর বিরুদ্ধে আমরা বলতে চাই এভাবে কোনো লাভ তাদের হবে না।’ 

বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ

বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ পাল্টা প্রতিক্রিয়ায় বলেছেন, ওরা নির্বাচন লড়বেন কি না ঠিক করে নিন। কারণ, এরপরে তো প্রত্যেকদিনই ধর্নায় বসতে হবে। এমন সমস্ত ঘটনা ঘটবে না খেয়েদেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়বেন। সেজন্য ওসব বাদ দিয়ে মাঠে নেমে রাজনীতি করুন।  দিদির ওই নাটকবাজি, ধর্না-ফর্না আর চলবে না বলেও দিলীপ বাবু মন্তব্য করেন।#

পার্সটুডে/এমএএইচ/এআর/১৫

 

ট্যাগ

মন্তব্য