• সের্গেই শোইগু- ব্রিগেডিয়ার জেনারেল হোসেইন দেহকান
    সের্গেই শোইগু- ব্রিগেডিয়ার জেনারেল হোসেইন দেহকান

সিরিয়ায় উগ্র তাকফিরি সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোর বিরুদ্ধে কঠোর হাতে নির্মূল অভিযান চালিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছে ইরান, রাশিয়া ও সিরিয়া। তিন দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রীরা টেলিফোনে আলাপ করার সময় এ অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

ইরানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল হোসেইন দেহকান তার রুশ সমকক্ষ সের্গেই শোইগু এবং সিরিয় সমকক্ষ ফাহাদ জাসেম আল-ফ্রেইজের সঙ্গে আলাদা আলাদাভাবে টেলিফোনে কথা বলেন। সিরিয়ার একটি বিমান ঘাঁটিতে মার্কিন ক্ষেপণাস্ত্র হামলা পরবর্তী পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলতেই মূলত এসব আলাপ করেন জেনারেল দেহকান।

সের্গেই শোইগুকে তিনি বলেন, সিরিয়ায় তৎপর সন্ত্রাসীদের বিপর্যস্ত মনোবল চাঙ্গা করতে আমেরিকা ওই ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে। এ হামলা ছিল সব ধরনের আন্তর্জাতিক আইনের লঙ্ঘন এবং একটি স্বাধীন দেশের ওপর প্রকাশ্য আগ্রাসন। এ ছাড়া, আমেরিকায় নিজের ক্ষয়িষ্ণু ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করার লক্ষ্যে এ হামলার নির্দেশ দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

টেলিফোনালাপে রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী শোইগু সন্ত্রাসীদের মোকাবিলায় অবিলম্বে সিরিয়ার সেনাবাহিনী ও গণবাহিনীকে শক্তিশালী করার আহ্বান জানান। তিনি সন্ত্রাসী ও তাদের মদদদাতাতের কঠোর জবাব দেয়ার জন্য রাশিয়ার পক্ষ থেকে সব ধরনের রাজনৈতিক ও সামরিক সক্ষমতাকে কাজে লাগানোর প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন।

ফাহাদ জাসেম আল-ফ্রেইজ- ব্রিগেডিয়ার জেনারেল হোসেইন দেহকান

এদিকে আলাদা টেলিফোনালাপে সিরিয়ার ইদলিব প্রদেশে গত সপ্তাহের রাসায়নিক হামলা সম্পর্কে মার্কিন মিথ্যাচারের স্বরূপ উন্মোচনের জন্য এ ব্যাপারে নিরপেক্ষ তদন্তের আহ্বান জানিয়েছেন সিরিয়া ও ইরানের প্রতিরক্ষামন্ত্রীরা। জেনারেল দেহকান বলেন, এ ধরনের অপবাদ দিয়ে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে সিরিয়ার সেনাবাহিনীর নির্মূল অভিযান বন্ধ করা যাবে না। দুই প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইরান ও সিরিয়ার মধ্যে দ্বিপক্ষীয় সামরিক সহযোগিতা আরো শক্তিশালী করার উপায় নিয়েও আলোচনা করেন।#

পার্সটুডে/মুজাহিদুল ইসলাম/১২

২০১৭-০৪-১২ ০৫:৫৩ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য