• বক্তব্য রাখছেন সর্বোচ্চ নেতা
    বক্তব্য রাখছেন সর্বোচ্চ নেতা

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী বলেছেন, শান্তি এবং নিরাপদ পরিবেশের মধ্যদিয়ে দেশে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। তিনি বলেন, পুরো মধ্যপ্রাচ্যে যখন ভয়াবহ অস্থিতিশীলতা বিরাজ করছে তখন ইরানে পরিপূর্ণ নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা বজায় রয়েছে।

সর্বোচ্চ নেতা প্রশ্ন করেন- “দেখুন তো আঞ্চলিক দেশগুলোর দিকে তাকিয়ে, এ অঞ্চলের কোন দেশ আছে যেখানে নিরাপত্তাহীনতা নেই?” তিনি বলেন, এই অনিরাপদ অবস্থার পরও নিরাপদ পরিবেশে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের জন্য প্রস্ততি নিচ্ছে ইরান। তেহরানের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষকে দেয়া সাক্ষাৎ অনুষ্ঠানে সর্বোচ্চ নেতা এসব কথা বলেন। আগামী ১৯ মে ইরানে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।  

স্লোগান দিচ্ছে উপস্থিত জনতা

আয়াতুল্লাহ খামেনেয়ী বলেন, ইরানের জনগণ ব্যাপক আগ্রহ নিয়ে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের জন্য অপেক্ষা করছে; এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। দেশের সমস্ত প্রশাসনিক, পর্যবেক্ষণকারী ও নিরাপত্তা সংস্থাগুলো ১৯ মে’র নির্বাচন নির্বিঘ্ন করার জন্য কঠোর পরিশ্রম করছে। এ সংস্থাগুলোর প্রতি দেশের মানুষের আস্থা রয়েছে তবু তাদেরকে সর্বোচ্চ সতর্কতার সঙ্গে জনগণের ভোটের অধিকার রক্ষায় কাজ করতে হবে। সর্বোচ্চ নেতা বলেন, কেউ কেউ নির্বাচনের সময় প্রতারণামূলক ভূমিকা রাখতে পারে। ইরানের জনগণের শত্রু রয়েছে; শত্রুর মোকাবেলায় তারা নির্বাচনী ব্যবস্থার প্রতি সমর্থন জানিয়ে তাদের ইচ্ছাশক্তি, আত্মবিশ্বাস ও ভারসাম্যের প্রমাণ রাখবে।

অনুষ্ঠানে আসা নারীদের একাংশ

আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী বলেন, শেষ বিচারে ১৯ মে’র নির্বাচনে ইরানের জনগণ ও ইসলামি সরকার ব্যবস্থাই বিজয়ী হবে। তিনি নির্বাচনের দিন এবং পরবর্তী সময়ে জনগণকে ধৈর্য ধরার আহ্বান জানান। এই শৃঙ্খলা ও প্রতিশ্রুতি আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সর্বোচ্চ নেতা জোর দিয়ে বলেন, ইসলামি সরকার ব্যবস্থাই ইরানের জনগণকে ভোটের অধিকার দিয়েছে।#

পার্সটুডে/সিরাজুল ইসলাম/১৭

 

২০১৭-০৫-১৭ ১৮:২৬ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য