• ইরানের রাষ্ট্রদূত রেজা নাজাফি
    ইরানের রাষ্ট্রদূত রেজা নাজাফি

পরমাণু অস্ত্র বিস্তার রোধ চুক্তি বা এনপিটি’র প্রতি পূর্ণ সমর্থন ঘোষণা করেছে ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান। জাতিসংঘের পরমাণু তদারকি বিষয়ক সংস্থা আইএইএ’তে নিযুক্ত ইরানের রাষ্ট্রদূত রেজা নাজাফি ওই সমর্থন জানিয়ে ঘোষণা করেছেন, ইরান হচ্ছে গণবিধ্বংসী অস্ত্রের অন্যতম প্রধান শিকার।

শুক্রবার নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘের সদর দপ্তরে পরমাণু বোমার বিরোধী ১২২ দেশের প্রতিনিধিরা এক সম্মেলনে যোগ দেন। সম্মেলন থেকে পরমাণু অস্ত্র তৈরি, পরীক্ষা, সংরক্ষণ, স্থানান্তর এবং যেকোনো পরিস্থিতিতে এই অস্ত্র দিয়ে হামলা চালানোর হুমকি সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করে বিবৃতি প্রকাশিত হয়।

এই বিবৃতির পক্ষে বিশ্বের বেশিরভাগ দেশ ভোট দিলেও ইহুদিবাদী ইসরাইলসহ পরমাণু অস্ত্রধর সবগুলো পশ্চিমা দেশ এই বিবৃতি প্রকাশের বিরোধিতা করেছে।  বিবৃতিটি অনুমোদিত হওয়ার পর আইএইএ’তে নিযুক্ত ইরানের প্রতিনিধি রেজা নাজাফি বলেন, বিশ্বে পরমাণু অস্ত্রের ব্যবহার পুরোপুরি নিষিদ্ধ করার পক্ষে তার দেশের শক্ত অবস্থান রয়েছে।

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা গণবিধ্বংসী অস্ত্রকে হারাম বা নিষিদ্ধ করে যে ফতোয়া দিয়েছেন সেকথা উল্লেখ করেন নাজাফি। তিনি বলেন, এবারের বিবৃতিতে পরমাণু অস্ত্রের ব্যবহার বন্ধে ধর্মীয় নেতাদের ভূমিকা রাখার যে আহ্বান জানানো হয়েছে তা প্রশংসার দাবি রাখে। স্পর্শকাতর মধ্যপ্রাচ্য অঞ্চলে ইহুদিবাদী ইসরাইলের পরমাণু অস্ত্রভাণ্ডারের ধ্বংসাত্মক প্রভাবের কথা উল্লেখ করে ইরানের রাষ্ট্রদূত বলেন, গোটা মধ্যপ্রাচ্যকে পরমাণু অস্ত্রমুক্ত করার যে দাবি তেহরান জানিয়েছে তা থেকে বোঝা যায় ইরান এই অস্ত্রের ধ্বংস চায়।#

পার্সটুডে/মুজাহিদুল ইসলাম/৮

ট্যাগ

২০১৭-০৭-০৮ ০৫:৪১ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য