ইরানে মার্কিন দূতাবাস দখলের ৩৮তম বার্ষিকী পালিত হয়েছে। প্রতিবছর দিনটিকে ইরানে সাম্রাজ্যবাদ-বিরোধী জাতীয় দিবস হিসেবে পালিত হয়।

দিবসটি উপলক্ষে রাজধানী তেহরানসহ সারা দেশে লাখ লাখ মানুষ রাজপথে নেমে মিছিল ও সমাবেশ করেন। মিছিলে অংশ নেয়া জনতার হাতে মার্কিন সাম্রাজ্যবাদ ও ইহুদিবাদী ইসরাইল-বিরোধী নানা শ্লোগান সম্বলিত ব্যানার ও প্ল্যাকার্ড ছিল।

মিছিল থেকে অনেকেই আমেরিকা-ইসরাইলের পতাকায় অগ্নিসংযোগ করেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। দিবসটি উপলক্ষে ইরানের রেডিও-টেলিভিশন থেকে বিভিন্ন অনুষ্ঠান সম্প্রচার করা হয়।

মার্কিন দূতাবাস দখলের বার্ষিকীতে বিক্ষোভ সমাবেশ

ইরানের ইসলামী সরকারকে উৎখাতের জন্য মার্কিন দূতাবাস থেকে নানামুখী ষড়যন্ত্র করা হচ্ছিল বলে নিশ্চিত হওয়ার পর ১৯৭৯ সালেল ৪ নভেম্বর ছাত্ররা সেখানে হামলা চালায় এবং কূটনীতিকের ছদ্মবেশী ৫২ জন মার্কিন গুপ্তচরকে আটক করে। ওই সব ছদ্মবেশী গুপ্তচর ইরানে ৪৪৪ দিন আটক ছিল। তারা সবাই ইরানের জনগণ ও ইসলামি বিপ্লবী সরকার উৎখাতের জন্য নানা রকম তৎপরতায় লিপ্ত ছিল।

দিনটিকে ইরানে ‘ছাত্র দিবস’ হিসেবেও পালন করা হয়। দিনটি উপলক্ষে বিপ্লবী জনগণ সাবেক মার্কিন দূতাবাস ভবনের সামনে জড়ো হন। ভবনটি ইরানের জনগণের কাছে গুপ্তচরের গুহা বলেও পরিচিতি পেয়েছে।#

পার্সটুডে/সিরাজুল ইসলাম/৪     

 

২০১৭-১১-০৪ ১৩:২২ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য