• ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ
    ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ বলেছেন, জেরুজালেম খ্যাত বায়তুল মুকাদ্দাস শহরের আরব ও ইসলামি পরিচিতি কেউ মুছে ফেলতে পারবে না। বায়তুল মুকাদ্দাসকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বুধবার যে ঘোষণা দিয়েছেন তার প্রতিক্রিয়ায় একথা বলেছেন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাওয়াদ জারিফ।

তিনি তার অফিসিয়াল টুইটার পেইজে আরবি ভাষায় লিখেছেন, “শত্রুরা চাক বা না চাক বায়তুল মুকাদ্দাস বা আল-কুদস শহর চিরদিন আরব ও ইসলামি পরিচিতি নিয়ে টিকে থাকবে। ”

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বুধবার সারা বিশ্বের বিরোধিতা ও প্রতিবাদ উপেক্ষা করে এবং আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করে ফিলিস্তিনের জেরুজালেম বা বায়তুল মুকাদ্দাস শহরকে ইহুদিবাদী ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি দিয়েছেন।  

আরবি ভাষায় জাওয়াদ জারিফের টুইট

বুধবার হোয়াইট হাউজ থেকে দেয়া ঘোষণায় ডোনাল্ড ট্রাম্প আরো জানিয়েছেন, তেল আবিব থেকে মার্কিন দূতাবাস বায়তুল মুকাদ্দাস শহরে সরিয়ে নেয়া হবে।

ট্রাম্প তার ঘোষণায় বলেন, “আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে, বায়তুল মুকাদ্দাসকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি দেয়ার সময় হয়েছে। আগের সব প্রেসিডেন্ট নির্বাচনী প্রচারণার সময় এ বিষয়ে প্রতিশ্রুতি দিতেন কিন্তু কেউ বাস্তবায়ন করেন নি। আমি বাস্তবায়ন করলাম।”

১৯৯৫ সালের ২৩ অক্টোবর ইসরাইলস্থ মার্কিন দূতাবাস তেল আবিব থেকে বায়তুল মুকাদ্দাসে নেয়ার বিল পাস করে মার্কিন কংগ্রেস। কিন্তু বিশ্বজনমতের প্রবল আপত্তির কথা বিবেচনা করে এতদিন কোনো মার্কিন প্রেসিডেন্ট ওই প্রস্তাব বাস্তবায়নের সাহস করেন নি। ইহুদিবাদী ইসরাইল ১৯৬৭ সালের আরব-ইসরাইল যুদ্ধে জেরুজালেম বা বায়তুল মুকাদ্দাস শহর দখল করে নেয়।#

পার্সটুডে/মুজাহিদুল ইসলাম/৭

 

২০১৭-১২-০৭ ০৭:২৭ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য