• ইমাম খোমেনি (রহ.)'র মাজারে সর্বোচ্চ নেতা ও প্রেসিডেন্ট

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ি আজ (বুধবার) ভোরে ইসলামি বিপ্লবের প্রতিষ্ঠাতা ইমাম খোমেনি (রহ.)'র মাজার জিয়ারত করেছেন। ইমাম খোমেনি (রহ.)'র স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসকে সামনে রেখে তিনি আজ সেখানে যান।

ইমাম খোমেনি (রহ.)'র মাজার জিয়ারত করছেন সর্বোচ্চ নেতা

ইমাম খোমেনি (রহ.)'র মাজার জিয়ারতের পর তিনি শহীদদের কবরস্থানে যান এবং সেখানে দোয়া পাঠ করেন। ১৯৮০'র দশকে ইরানের ওপর ইরাকের চাপিয়ে দেয়া যুদ্ধে শহীদদের অনেকের করব সেখানে অবস্থিত।

কবর জিয়ারত করছেন সর্বোচ্চ নেতা

 

জিয়ারত করছে প্রেসিডেন্ট ও মন্ত্রিসভার কয়েকজন সদস্য

এরপর আজ ইরানের প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি ও মন্ত্রিসভার সদস্যরা ইমামের মাজার জিয়ারত করেছেন। সেখানে প্রেসিডেন্ট বলেছেন, ইরানিরা কখনোই ইসলাম ধর্ম ও প্রজাতান্ত্রিক ব্যবস্থা থেকে সরে যাবে না। সাম্রাজ্যবাদী দেশগুলোকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, ইরানিরা তাদের অর্জিত স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব কখনোই বিলীন হতে দেবে না।  

ইমাম খোমেনি (রহ.)'র স্বদেশ প্রত্যাবর্তন

১৯৭৯ সালের ১২ই বাহমান বা ১লা ফেব্রুয়ারি ইরানের ইসলামী বিপ্লবের নেতা মরহুম ইমাম খোমেনি (রহ.) ১৫ বছরের নির্বাসিত জীবন শেষে তেহরানে ফিরে আসেন। তাঁর দেশে ফেরার ১০ দিনের মাথায় অর্থাৎ ১১ই ফেব্রুয়ারি ইসলামী বিপ্লবের চূড়ান্ত বিজয় ঘটে। প্রতি বছর ১২ই বাহমান থেকে ২২শে বাহমান এই ১০ দিন ইরানে নানা কর্মসূচি পালন করা হয়। #

পার্সটুডে/সোহেল আহম্মেদ/৩১

 

ট্যাগ

২০১৮-০১-৩১ ১৭:০১ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য