• প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি- প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগান
    প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি- প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগান

ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি বলেছেন, সিরিয়ার পূর্ব গৌতার বেসামরিক জনগণকে রক্ষা করার ক্ষেত্রে তেহরান ও আঙ্কারার গুরুদায়িত্ব রয়েছে। তিনি গৌতায় মানবিক বিপর্যয় ঠেকাতে প্রচেষ্টা চালানোর জন্য সংশ্লিষ্ট সব পক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

হাসান রুহানি বুধবার সন্ধ্যায় তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগানের সঙ্গে এক টেলিফোনালাপে এ আহ্বান জানান।  

তিনি তুর্কি প্রেসিডেন্টকে বলেন, বর্তমান স্পর্শকাতর মুহূর্তে সিরিয়ার দু’টি মুসলিম প্রতিবেশী দেশ হিসেবে ইরান ও তুরস্ককে পূর্ব গৌতার সম্ভাব্য বিপর্যয় রোধে সাহায্য করতে এবং সেখানে যাতে টেকসই যুদ্ধবিরতি কার্যকর করা যায় সে চেষ্টা চালাতে হবে।

ইরানের প্রেসিডেন্ট বলেন, পূর্ব গৌতা থেকে সন্ত্রাসীদের পক্ষ হতে রাজধানী দামেস্ককে লক্ষ্য করে গোলাবর্ষণ বন্ধ করার পাশাপাশি সেখানে আটকে পড়া বেসামরিক নাগরিকদের নিরাপদে বের হয়ে আসার সুযোগ করে দিতে হবে। এ কাজে তুরস্ককে তার প্রভাব কাজে লাগানোর আহ্বান জানান প্রেসিডেন্ট রুহানি।

সন্ত্রাসীদের নিয়ন্ত্রিত সিরিয়ার পূর্ব গৌতা এলাকার একটি দৃশ্য

টেলিফোন সংলাপে তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোগান সিরিয়ার পূর্ব গৌতা এলাকার পরিস্থিতিকে অত্যন্ত দুঃখজনক আখ্যায়িত করে বলেন, এই পরিস্থিতি থেকে সেখানকার সাধারণ মানুষকে রক্ষা করার জন্য ইরান ও তুরস্ককে প্রচেষ্টা চালাতে হবে।

তিনি পূর্ব গৌতা থেকে দামেস্ককে লক্ষ্য করে গোলাবর্ষণ বন্ধ করার প্রয়োজনীয়তা স্বীকার করে বলেন, যতদ্রুত সম্ভব সেখানে যুদ্ধবিরতি কার্যকর করতে হবে এবং এজন্য তেহরান ও আঙ্কারা মধ্যে সহযোগিতা প্রয়োজন।#

পার্সটুডে/মুজাহিদুল ইসলাম/৮

 

ট্যাগ

২০১৮-০৩-০৮ ০৭:০৮ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য