• ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ
    ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ বলেছেন, তার দেশ কখনো পরমাণু অস্ত্র তৈরি করতে চায়নি বলে আমেরিকার ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্রমন্ত্রী যে সরল স্বীকারোক্তি দিয়েছেন তার ফলে প্রমাণিত হয়েছে, তেহরানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা চাপিয়ে দেয়া ছিল অন্যায়।

মার্কিন নিউজ চ্যানেল সিবিএস’কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে শুক্রবার এ মন্তব্য করেন জারিফ। তিনি বলেন, এখনো আমেরিকা নতুন করে ইরানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করার পরিকল্পনা করছে কারণ, ইরান পরমাণু অস্ত্র তৈরির চেষ্টা করছে না।

মার্কিন প্রেসিডেন্টের প্রস্তাবিত পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও গত ১২ এপিল সিনেটের পররাষ্ট্র সম্পর্ক বিষয়ক কমিটির এক শুনানিতে বলেন, “ইরান পরমাণু সমঝোতা স্বাক্ষরের আগেও পরমাণু অস্ত্র তৈরির চেষ্টা করেনি। এ ছাড়া, এখনো যতদূর জানি যদি পরমাণু সমঝোতা না থাকে তাহলেও তেহরান পরমাণু অস্ত্র তৈরির দিকে ঝুঁকবে না।”

মার্কিন প্রেসিডেন্টের প্রস্তাবিত পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও

২০১‌৫ সালের জুলাই মাসে জার্মানি এবং জাতিসংঘের পাঁচ স্থায়ী সদস্যদেশ রাশিয়া, চীন, ফ্রান্স, ব্রিটেন ও আমেরিকাকে নিয়ে গঠিত ছয় জাতিগোষ্ঠী ইরানের সঙ্গে পরমাণু সমঝোতা সই করে যা ২০১৬ সালের জানুয়ারি মাসে কার্যকর হয়। কিন্তু আমেরিকা এ সমঝোতার অন্যতম পক্ষ হলেও এখন পর্যন্ত এটি সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করেনি।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরানের পরমাণু সমঝোতাকে তার দেশের জন্য ‘ভয়ঙ্কর’ আখ্যায়িত করে এটি বাতিল বা অন্তত এটি থেকে আমেরিকাকে বের করে নেয়ার চেষ্টা করছেন।#

পার্সটুডে/মুজাহিদুল ইসলাম/২১

 

২০১৮-০৪-২১ ০৬:৪২ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য