• ইরানের কোচ কার্লোস কেইরুস
    ইরানের কোচ কার্লোস কেইরুস

পর্তুগালের বিপক্ষে 'বি' গ্রুপের শেষ ম্যাচে রেফারি ও ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি (ভিএআর)-এর সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন ইরানের কোচ কার্লোস কেইরুস। ইরানের খেলোয়াড়কে কনুই দিয়ে আঘাত করায় পর্তুগাল অধিনায়ক ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর লাল কার্ড পাওয়া উচিত ছিল বলে মনে করেন তিনি।

গতকাল (সোমবার) মরদোভিয়া অ্যারেনা সারনস্কে অনুষ্ঠিত নিজেদের শেষ ম্যাচে পর্তুগালের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করে ইরান। তবে পর্তুগালের বিপক্ষে দল জয়ের দাবিদার ছিল বলে মনে করেন কেইরুস। সংবাদ সম্মেলনে বলেন, “এই ম্যাচে কেবল একটি দলই জয়ী হতে পারত এবং সেটা হওয়া উচিত ইরান। জয় আমাদের প্রাপ্য ছিল।...আমি গর্বিত কিন্তু হতাশ।”

প্রথমার্ধের ৪৫ মিনিটে গোল খাওয়ার পর দ্বিতীয়ার্ধে দারুণ লড়াই করে ইরান। ৮০তম মিনিটে ইরানি ডিফেন্ডার মোর্তেজা পুরআলীগানজিকে কনুই দিয়ে আঘাত করেন রোনালদো। ভিডিও রিপ্লে দেখে পাঁচবারের বর্ষসেরা এই খেলোয়াড়কে হলুদ কার্ড দেখান রেফারি। তবে কেইরুস মনে করেন লাল কার্ড প্রাপ্য ছিল পর্তুগাল অধিনায়কের।

লাল কার্ডের পরিবর্তে রোনালদোকে হলুদ কার্ড দেখাচ্ছেন রেফারি

২০১০ বিশ্বকাপে পর্তুগালের কোচের দায়িত্ব পালন করা কেইরুস বলেন, "নিয়ম হলো, কনুই দিয়ে ধাক্কা মারলে লাল কার্ড পেতে হবে। সেটা মেসি মারল না রোনালদো, সেটা দেখার বিষয় নয়। নিয়ম অনুযায়ী এটা লাল কার্ড মানে লাল কার্ড।"

ভিএআরের কার্যকারিতা নিয়েও প্রশ্ন তুলে কেইরুস বলেন, "আমার অভিযোগ নির্দিষ্ট কোনো রেফারি নিয়ে নয়, বরং তাদের সাহসিকতা, দৃষ্টিভঙ্গি ও চরিত্রের দৃঢ়তা নিয়ে। সিদ্ধান্ত সকলের জন্যই একই রকম হওয়া উচিত। আমার মতে, ফিফা ও প্রেসিডেন্ট ইনফান্তিনো সবাইকেই এটা স্বীকার করতে হবে যে, ভিএআর ঠিকমতো কাজ করছে না। এটাই বাস্তবতা। ভিএআর নিয়ে এখনও পর্যন্ত অনেক অভিযোগ এসেছে।"

ভিএআরের স্বচ্ছতা সম্পর্কেও জানতে চান তিনি। বলেন, "সিদ্ধান্তগুলো আসলে কারা নিচ্ছে? আমাদের সেটা জানার অধিকার আছে। আগে রেফারিরা ভুল করতেন, আমরা সেগুলো মেনে নিতাম। কিন্তু এখন তো আমাদের কাছে ভিএআর আছে। ভিএআর থাকার পরেও কেন তাহলে ভুল সিদ্ধান্ত আসবে? এত উন্নত প্রযুক্তি আছে, এতদিনের প্রশিক্ষণ আছে, রুমে বসে পাঁচজন সার্বক্ষণিক নজরও রাখছেন। তারপরও তারা একটা কনুই মারা ধরতে পারলেন না?"

রেফারিরা রোনালদোদের মতো তারকাদের ছাড় দিচ্ছেন কি-না এমন প্রশ্নের জবাবে কেইরুস বলেন, "আপনাদের দরকার তাদের জিজ্ঞাসা করা।"

ইরানি খেলোয়াড়দের প্রশংসা করে কেইরুস বলেন, "খুবই প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ একটা ম্যাচ দেখেছি আমরা। বিশ্বসেরা একটি দলের বিপক্ষে প্রতিটি মিনিট সমানে সমানে লড়াই করেছি আমরা। যেভাবে পুরো খেলাটাকে নিয়ন্ত্রণ করেছি আমরা, ফুটবলে যদি কিছুটা হলেও ন্যায়বিচার থাকত, যেটা আসলে নেই, তাহলে ইরানই জিতে ফিরত।"

এবারের বিশ্বকাপে ‘বি’ গ্রুপে স্পেন, পর্তুগাল ও মরক্কোর বিরুদ্ধে প্রতিযোগিতায় নামে ইরান।  ১৫ জুন নিজেদের প্রথম খেলায় আফ্রিকার অন্যতম শক্তিশালী দল মরক্কোকে ১-০ গোলে পরাজিত করে তারা। এরপর নিজেদের দ্বিতীয় খেলায় বিশ্ব ফুটবলের অন্যতম বড় শক্তি স্পেনের কাছে ০-১ গোলের ব্যবধানে হেরে যায়।

গ্রুপ ‘বি’ থেকে পর্তুগাল ও স্পেন প্রত্যেকে ৫ পয়েন্ট করে পেয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে উন্নীত হয়েছে। ইরান ৪ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় এবং মরক্কো ১ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থান অধিকার করেছে।#

পার্সটুডে/আশরাফুর রহমান/২৬

 

২০১৮-০৬-২৬ ১৭:৫৬ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য