• ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি (সামনে ডনে) ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাওয়াদ জারিফ
    ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি (সামনে ডনে) ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাওয়াদ জারিফ

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি বলেছেন, কাস্পিয়ান সাগর দিয়ে তীরবর্তী দেশগুলো ছাড়া বাইরের দেশের কোনো সেনা বা সামরিক জাহাজ চলাচল করতে পারবে না।  

তিনি আরো বলেছেন, এ সাগরের নিরাপত্তার বিষয়টি সম্পূর্ণভাবে তীরবর্তী পাঁচ দেশের ওপর নির্ভর করবে। কাজাখস্তানের বন্দরনগরী আকতাউয়ে আজ (রোববার) ঐতিহাসিক কনভেনশনে সই করার পর এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।  

ইরানের প্রেসিডেন্ট বলেন, কাস্পিয়ান সাগরের আইনি অবস্থান বা মর্যাদা নিয়ে সই হওয়া কনভেনশনের মাধ্যমে তীরবর্তী দেশগুলোর মধ্যে আরো ভালো ও শক্তিশালী সম্পর্ক তৈরি হবে। তিনি বলেন- রাশিয়া, আজারবাইজান, কাজাখস্তান ও তুর্কমেনিস্তানের সঙ্গে ইরানের সম্পর্ক সবসময় যথেষ্ট আন্তরিক ও উষ্ণ ছিল।  

কনভেনশনে অংশ নেয়া ৫ দেশের নেতা

কাজাখস্তানের বন্দরনগরী আকতাউয়ে আজ (রোববার) পাঁচ দেশের শীর্ষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। দুই দশকের বেশি সময় ধরে আলোচনার পর কাস্পিয়ান সাগরের আইনি অবস্থান নিয়ে কনভেনশন সই করা সম্ভব হলো। কনভেনশনে সই করা দেশগুলো হচ্ছে কাস্পিয়ান সাগরের তীরবর্তী দেশ এবং কাস্পিয়ান সাগরের সম্পদের মালিক তারাই।

কনভনেশনে ২৪টি অনুচ্ছেদ রয়েছে যার মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অনুচ্ছেদ হচ্ছে এই সাগরে বাইরের কোনো দেশের সামরিক উপস্থিতি থাকতে পারবে না। এছাড়া, এ সাগর দিয়ে বাইরে কোনো দেশ কোনো সামরিক সরঞ্জাম পরিবহন করতে পারবে না। পাশাপাশি সদস্য দেশগুলোর কেউ তাদের নিজেদের কোনো সামরিক ঘাঁটি বাইরের কোনো দেশের কাছে হস্তান্তর করতে পারবে না।#

পার্সটুডে/এসআইবি/১২

ট্যাগ

২০১৮-০৮-১২ ২২:৩২ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য