২০১৯-০১-২৩ ০৫:৪৯ বাংলাদেশ সময়
  • সুইস রাষ্ট্রদূত মার্কোস লাইটনার
    সুইস রাষ্ট্রদূত মার্কোস লাইটনার

আমেরিকায় ইরানের ইংরেজি নিউজ চ্যানেল প্রেস টিভি’র সাংবাদিক ও উপস্থাপক মারজিয়া হাশেমিকে অবৈধভাবে আটকের প্রতিবাদে তেহরানে নিযুক্ত সুইস রাষ্ট্রদূত মার্কোস লাইটনারকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করা হয়েছে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বাহরাম কাসেমি এ খবর জানিয়ে বলেছেন, বেআইনিভাবে ইরানি নাগরিক মারজিয়া হাশেমিকে আটক এবং বেশ কয়েকদিন পরও তাকে মুক্তি না দেয়ায় সুইস রাষ্ট্রদূতকে তলব করে তেহরানের তীব্র প্রতিবাদের কথা জানিয়ে দেয়া হয়েছে।

১৯৭৯ সালে ইসলামি বিপ্লবের পর থেকে ইরানে সুইস দূতাবাস মার্কিন স্বার্থ দেখাশোনা করে।

বাহরাম কাসেমি

কাসেমি বলেন, প্রেস টিভির সাংবাদিককে অবৈধভাবে আটক, তার সঙ্গে অমানবিক ও বৈষম্যমূলক আচরণের ব্যাপারে একটি আনুষ্ঠানিক প্রতিবাদপত্র সুইস রাষ্ট্রদূতের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে যেখানে অবিলম্বে মারজিয়া হাশেমি’র নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করা হয়েছে।

প্রতিবাদলিপিতে বলা হয়েছে, প্রেস টিভির সাংবাদিকের সঙ্গে এফবিআই’র অসঙ্গত আচরণ এবং তাকে আটকের ব্যাপারে মার্কিন কর্মকর্তাদের রহস্যজনক নীরবতা আন্তর্জাতিক আইন ও মানবাধিকারের পরিপন্থি। কাজেই এ ব্যাপারে মার্কিন সরকারকে জবাবদিহী করতে হবে।

মারজিয়া হাশেমি

এ সময় সুইস রাষ্ট্রদূত লাইটনার বলেন, তিনি অবিলম্বে ইরানের এ প্রতিবাদের কথা মার্কিন সরকারকে জানাবেন এবং ওয়াশিংটনের জবাব সম্পর্কে তেহরানকে অবহিত করবেন।

আমেরিকায় জন্মগ্রহণকারী ৫৯ বছর বয়সি সাংবাদিক মারজিয়া হাশেমি তরুণ বয়সে ইসলাম গ্রহণ করেন। তিনি একজন ইরানি নাগরিকের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে গত কয়েক দশক ধরে ইরানে বসবাস করছিলেন। গত রোববার আমেরিকার সেন্ট লুইস ল্যাম্বার্ট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে তাকে আটক করা হয়। তিনি নিজের অসুস্থ ভাই ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যের সঙ্গে সাক্ষাতের উদ্দেশ্যে আমেরিকা সফরে যান।#

পার্সটুডে/মুজাহিদুল ইসলাম/২৩    

#freemarziyehhashemi 

#pray4marziehhashmei

 

ট্যাগ

মন্তব্য