২০১৯-০৯-১২ ০৭:২২ বাংলাদেশ সময়
  • ইরানের সর্বোচ্চ জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের সচিব আলী শামখানি
    ইরানের সর্বোচ্চ জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের সচিব আলী শামখানি

ইরানের সর্বোচ্চ জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের সচিব আলী শামখানি বলেছেন, মার্কিন প্রশাসনে রদবদলের কারণে আমেরিকার ব্যাপারে ইরানের দৃষ্টিভঙ্গিতে কোনো পরিবর্তন আসবে না। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তার যুদ্ধবাজ জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টনকে বরখাস্ত করার পর এ ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে শামখানি একথা বলেন।

তিনি বলেন, ইরানের বিরুদ্ধে মার্কিন সরকারের শত্রুতা ও বিদ্বেষের শেকড় মাটির অনেক গভীরে প্রোথিত এবং একজন বা দু’জন কর্মকর্তাকে সরিয়ে দিলে তা ওই শত্রুতা নির্মূলে কোনো প্রভাব ফেলবে না। ইরানের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা কর্মকর্তা বলেন, সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ও বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বাহ্যিকভাবে দুই ধরনের নীতি গ্রহণ করলেও দু’টি প্রশাসনই তেহরানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপের নীতিতে অটল ছিল। এ থেকে বোঝা যায়, ইরানের সঙ্গে শত্রুতার ক্ষেত্রে মার্কিনীদের চরিত্রে কোনো পরিবর্তন আসেনি।

ডোনাল্ড ট্রাম্প মঙ্গলবার রাতে বোল্টনকে (ডানে) বরখাস্ত করেন

শামখানি বলেন, আমেরিকা তার আন্তর্জাতিক প্রতিশ্রুতি পূরণ করে পরমাণু সমঝোতায় ফিরে আসে কিনা এবং তেহরানের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে কিনা তার ওপর ওয়াশিংটনের ব্যাপারে ইরানের দৃষ্টিভঙ্গিতে পরিবর্তন আসার বিষয়টি নির্ভর করছে।

ইরানের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা পরিষদের সচিব বলেন, জন বোল্টন ছিলেন ইরানের ইসলামি সরকার বিরোধী মোনাফেকিন গোষ্ঠীর বেতনভুক্ত কর্মচারী যিনি এই সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর সঙ্গে তাল মিলিয়ে ৪০ বছরপূর্তির আগেই ইরানের ইসলামি বিপ্লব ধ্বংস হয়ে যাবে বলে ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন। কিন্তু ইসলামি বিপ্লব সগৌরবে ৪০ বছরপূর্তি উদযাপন করেছে অন্যদিকে বোল্টন ইতিহাসের আস্তাকুড়ে নিক্ষিপ্ত হয়েছেন।#

পার্সটুডে/এমএমআই/১২

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ

মন্তব্য