• লেবাননের প্রেসিডেন্ট মিশেল আউন
    লেবাননের প্রেসিডেন্ট মিশেল আউন

লেবাননের প্রেসিডেন্ট মিশেল আউন বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী সাদ হারিরির পদত্যাগের ব্যাপারে দেশের জনগণ ঐক্যবদ্ধ অবস্থান নেয়ার কারণে হারিরি নিজের অবস্থান স্পষ্ট করতে বাধ্য হয়েছেন।

সৌদি আরব সফরে গিয়ে নিজের পদত্যাগের কথা ঘোষণা করে টানা এক সপ্তাহ অন্তর্ধানে ছিলেন সাদ হারিরি। অবশেষে রোববার নিজের নীরবতা ভেঙে তিনি ঘোষণা করেন, নিরাপত্তাগত কারণে তিনি পদত্যাগ করেছেন এবং খুব শিগগিরই দেশে ফিরবেন।

সাদ হারিরি

গত ৪ নভেম্বর সাদ হারিরি প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে ইস্তফা দেয়ার ঘোষণা দিলেও এখনো প্রেসিডেন্ট আউন তার পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেননি। প্রেসিডেন্ট বলেন, সাদ হারিরি সশরীরে এসে নিজের পদত্যাগের কারণ না জানানো পর্যন্ত তিনি পদত্যাগপত্র গ্রহণের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবেন না।

হারিরি স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের ঘোষণা দেয়ার পর সোমবার প্রেসিডেন্ট আউন বলেন, হারিরি পদত্যাগের ঘোষণা দেয়ার পরও লেবাননের জনগণ ঐক্যবদ্ধ থাকার কারণে দেশে বিদেশি হস্তক্ষেপের আশঙ্কা বাস্তবরূপ লাভ করেনি। সেইসঙ্গে আন্তর্জাতিক সমাজ লেবাননের পাশে দাঁড়িয়েছে।  

আউন বলেন, সাদ হারিরি দেশে ফিরে আসার পর তার পদত্যাগ সংক্রান্ত সব জল্পনার অবসান হবে এবং সব ধরনের উদ্বেগ-উৎকণ্ঠাও দূর হবে।

সাদ হারিরি রোববার লেবাননের আল-মুস্তাকবেল টেলিভিশনকে দেয়া লাইভ সাক্ষাৎকারে বলেন, তিনি দুই/তিন দিনের মধ্যে দেশে ফিরবেন এবং এরপর নিজের হাতে প্রেসিডেন্ট আউনের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেবেন।

লেবাননের কর্মকর্তারা মনে করছেন, সৌদি আরবের চাপের মুখে প্রধানমন্ত্রী হারিরি রিয়াদ সফরে গিয়ে অপ্রত্যাশিত ও আকস্মিকভাবে নিজের পদত্যাগের কথা ঘোষণা করেছেন। তাদের মতে, লেবাননের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহর ক্ষতি করার লক্ষ্যে সৌদি সরকার সাদ হারিরিকে পদত্যাগে বাধ্য  করেছে।#

পার্সটুডে/মুজাহিদুল ইসলাম/১৪

 

২০১৭-১১-১৪ ০৭:২৮ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য