• এ পর্যন্ত মুসলিম  ব্রাদারহুডের শত শত নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মৃত্যুদণ্ড ঘোষিত হয়েছে
    এ পর্যন্ত মুসলিম ব্রাদারহুডের শত শত নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মৃত্যুদণ্ড ঘোষিত হয়েছে

মিশরের একটি সামরিক আদালত সেদেশের নিষিদ্ধ রাজনৈতিক সংগঠন মুসলিম ব্রাদারহুডের ১৪ সদস্যকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে। দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট মুহাম্মাদ মুরসি সামরিক অভ্যুত্থানে ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পরবর্তী সময়কার সহিংসতায় জড়িত থাকার অভিযোগের তাদেরকে সর্বোচ্চ শাস্তি দেয়া হলো।

রোববার মিশরের আলেক্সান্দ্রিয়া প্রদেশের ওই সামরিক আদালত ১৪ জনকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া ছাড়াও ২৪ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং পাঁচ জনকে ১৫ বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছে।

দণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আদালতে যেসব অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ার কথা বলা হয়েছে তার কয়েকটি হচ্ছে, একটি নিষিদ্ধ সংগঠনের সদস্য হওয়া, একজন সৈন্যকে হত্যা করা, আলেক্সান্দ্রিয়া প্রদেশের বিভিন্ন স্থানে বোমা হামলা চালানো এবং মিশরের বিচার মন্ত্রণালয়ের দু’টি গাড়িতে আগুন দেয়া।

আদালতের কাঠগড়ায় সাবেক প্রেসিডেন্ট মুরসি

মিশরের বর্তমান প্রেসিডেন্ট আব্দেল ফাত্তাহ আল-সিসি ২০১৩ সালে সামরিক অভ্যুত্থান ঘটিয়ে তৎকালীন প্রেসিডেন্ট ও মুসলিম ব্রাদারহুড নেতা মুহাম্মাদ মুরসিকে ক্ষমতাচ্যুত ও বন্দি করেন।

ওই ক্ষমতাচ্যুতির জের ধরে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে জনতার সংঘর্ষে হাজার হাজার মানুষ নিহত হয়। এসব সংঘর্ষের জন্য ব্রাদারহুড সংগঠনকে দায়ী করে দলটির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে ব্যাপক দমন অভিযান চালানো হয়। এ পর্যন্ত এই দলের শত শত নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মৃত্যুদণ্ড ঘোষিত হয়েছে।#

পার্সটুডে/মুজাহিদুল ইসলাম/১৮

ট্যাগ

২০১৭-১২-১৮ ০৬:৫৩ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য