• জর্ডানের কাছে ইসরাইলের ক্ষমা প্রার্থনা; চালু করতে চায় দূতাবাস

জর্ডানের দুই নাগরিককে হত্যার জন্য সেদেশের কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে ক্ষমা চেয়েছে ইহুদিবাদী ইসরাইল। জর্ডান সরকারের মুখপাত্র মোহাম্মাদ আল মোমানি বলেছেন, ইসরাইলের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক চিঠিতে ২০১৬ সালের জুলাইয়ের হত্যাকাণ্ডের জন্য গভীর দুঃখ প্রকাশের পাশাপাশি ক্ষমা চেয়েছে। খুনি নিরাপত্তারক্ষীর বিচার করা হবেও প্রতিশ্রুতি দিয়েছে তেল আবিব।

২০১৬ সালের জুলাইয়ে জর্ডানের রাজধানী আম্মানে ইসরাইলি দূতাবাসে দুই জর্ডানি নাগরিককে হত্যা করে এক ইহুদিবাদী নিরাপত্তারক্ষী। এরপর ইসরাইলি কর্তৃপক্ষ খুনিকে দ্রুত জর্ডান থেকে সরিয়ে নেয়।

এর পরপরই রাষ্ট্রদূতসহ দূতাবাসের অন্য কর্মকর্তা-কর্মচারীরা জর্ডান ত্যাগ করে। ইসরাইলি কতৃপক্ষ ২০১৪ সালে জর্ডানের বিচারক রায়েদকে হত্যার জন্যও ক্ষমা চেয়েছে বলে জর্ডান সরকারের মুখপাত্র জানিয়েছেন। ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর দপ্তর থেকে বলা হয়েছে, খুব শিগগিরই জর্ডানে অবস্থিত ইসরাইলি দূতাবাস চালু করা হবে।

তবে জর্ডানের সংসদের ফিলিস্তিন বিষয়ক কমিশনের প্রধান ইয়াহিয়া আল সৌদ ইসরাইলি রাষ্ট্রদূতকে ডর্জানে ফেরার অনুমতি না দিতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ইসরাইলি রাষ্ট্রদূতকে জর্ডানে প্রবেশ করতে দেয়া হলে সরকারের বিরুদ্ধে সংসদে অনাস্থা প্রস্তাব আনা হবে।#

পার্সটুডে/সোহেল আহম্মেদ/১৯

 

ট্যাগ

২০১৮-০১-১৯ ১৮:২৭ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য