• ইয়েমেনে অবিলম্বে আগ্রাসন বন্ধ করুন: ইরান

ইরান অবিলম্বে ইয়েমেনের বিরুদ্ধে আরোপিত অবরোধ ও আগ্রাসন বন্ধের আহ্বান জানিয়েছে। ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ইয়েমেনে সৌদি আগ্রাসনের তিন বছর পূর্তিতে এক বিবৃতিতে ওই আহ্বান জানিয়েছে।

বিবৃতিতে দু'টি বিষয়ের ওপর বিশেষভাবে জোর দেয়া হয়েছে। প্রথমত, ইয়েমেনে আগ্রাসনের প্রতি সমর্থন না দেয়ার পাশাপাশি হামলাকারীদেরকে অস্ত্র দেয়া বন্ধ করে অবিলম্বে যুদ্ধ অবসানের জন্য আমেরিকা ও ইউরোপের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে। আর দ্বিতীয়ত, ধ্বংসাত্মক যুদ্ধ বন্ধের জন্য প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখার ওপর জোর দেয়া হয়েছে।

ইরান মনে করে যুদ্ধের মাধ্যমে নয় বরং একমাত্র রাজনৈতিক উপায়ে ইয়েমেন সংকটের অবসান সম্ভব। এ কারণে অবরোধ ও আগ্রাসন বন্ধে সৌদি আরবের ওপর চাপ সৃষ্টির জন্য ইরান আন্তর্জাতিক সমাজের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে। গত জানুয়ারিতে জাতিসংঘের প্রকাশিত সর্বশেষ প্রতিবেদনে দেখা গেছে, সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের অব্যাহত বিমান হামলায় ইয়েমেনে এ পর্যন্ত ১২ হাজারের বেশি মানুষ নিহত হয়েছে। জাতিসংঘের মানবিক ত্রাণ বিষয়ক সচিব মার্ক লুকুক ইয়েমেনের রাজধানী সানার বিধ্বস্ত অবস্থা দেখে এসে বলেছেন, সেখানে মানবিক বিপর্যয় দেখা দিয়েছে এবং প্রতিদিনই পরিস্থিতি খারাপের দিকে যাচ্ছে। এদিকে, ইয়েমেনের শিক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত তিন বছরে সৌদি হামলায় দুই হাজার ৬৪০টি স্কুল ও অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠা ধ্বংস হয়ে গেছে।

আমিরাতসহ আরো কয়েকটি দেশের সহযোগিতায় সৌদি আরব ২০১৫ সালের ২৬ মার্চ থেকে ইয়েমেনের বিরুদ্ধে স্থল, আকাশ ও সমুদ্র পথে অবরোধ আরোপের পাশাপাশি দেশটির বিরুদ্ধে বিমান হামলা চালিয়ে যাচ্ছে। ইন্ডিপেন্ডেন্ট এক প্রতিবেদনে লিখেছে, ইয়েমেনের দুই তৃতীয়াংশ মানুষ দুর্ভিক্ষের কবলে পড়েছে এবং ৭০ লাখ মানুষ অপুষ্টিতে ভুগছে। এ কারণে প্রতি ১০ মিনিটে একটি করে শিশু মারা যাচ্ছে।

ইয়েমেনের বিরুদ্ধে আগ্রাসনে সৌদি আরব গুচ্ছ বোমাসহ অন্যান্য নিষিদ্ধ অস্ত্র ব্যবহার করছে। নিউইয়র্ক ভিত্তিক আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচের নির্বাহী প্রধান কেনেথ রাস বলেছেন, আবাসিক এলাকার ওপর নিষিদ্ধ গুচ্ছ বোমা নিক্ষেপের পক্ষে সৌদি আরবের কোনো ব্যাখ্যা নেই। গত তিন বছর ধরে সৌদি আরব এমন সময় ইয়েমেনে আগ্রাসন চালিয়ে যাচ্ছে যখন জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ সহিংসতা ও যুদ্ধ বন্ধের জন্য প্রস্তাব পাশে বিরত রয়েছে। জাতিসংঘ ইয়েমেন যুদ্ধ বন্ধে কোনো ভূমিকাই রাখেনি এবং মানবিক বিপর্যয় রোধেও গড়িমসি করছে। এমনকি সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের আগ্রাসনের নিন্দা পর্যন্ত জানায়নি।

বর্তমানে ইয়েমেন সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের জন্য চোরাবালিতে পরিণত হয়েছে এবং যুদ্ধ বন্ধের ক্ষমতাও রিয়াদের নেই। # 

পার্সটুডে/রেজওয়ান হোসেন/২৬

 

২০১৮-০৩-২৬ ১৬:৪৯ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য