• কুর্দি যোদ্ধা ও মার্কিন সেনাদের ফাইল ফটো
    কুর্দি যোদ্ধা ও মার্কিন সেনাদের ফাইল ফটো

কুর্দিদের প্রতি সমর্থনের অংশ হিসেবে সিরিয়ায় সেনা উপস্থিতি বাড়িয়েছে ফ্রান্স। এসব সেনা মার্কিন সেনাদের সঙ্গে মিলে কুর্দি যোদ্ধাদের নানা সহযোগিতা দেবে। তবে কুর্দি যোদ্ধারা সিরিয়াকে বিভক্ত করতে চায় বলে অভিযোগ রয়েছে।

তুরস্কের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আনাদোলু গতকাল (রোববার) জানিয়েছে, ফ্রান্সের স্পেশাল ফোর্স সিরিয়া-ইরাক সীমান্তে ছয়টি গোলন্দাজ ব্যাটারি বসিয়েছে। এসব ব্যাটারি নিয়ন্ত্রণ করছে কথিত সিরিয়ান ডেমোক্র্যাটিক ফোর্স বা এসডিএফ। আনাদোলুর খবরে বলা হয়েছে, এরইমধ্যে ফরাসি অবস্থান থেকে গোলা ছোঁড়া হয়েছে।  

মার্কিন নেতৃত্বাধীন কথিত জোট টুইটার বার্তায় দাবি করেছে, কুর্দি যোদ্ধাদের সমর্থনে দায়েশ সন্ত্রাসীদের ওপর হামলা করা হয়েছে। ফোরাত নদীর পূর্ব তীরে গোলাবর্ষণ করা হয় বলে টুইটার বার্তায় দাবি করা হয়।  

আমেরিকা ও তার মিত্ররা দাবি করে আসছে, ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বর থেকে তারা দায়েশ সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে হামলা চালাচ্ছে। কিন্তু এসব হামলায় দায়েশের বড় কোনো ক্ষতি হয়েছে এমন নজির নেই। শুধু তাই নয়, রাশিয়া যেমন প্রকাশ্যে দায়েশের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযানে অংশ নিয়েছে তেমন কোনো কিছু মার্কিন জোট করে নি। সে কারণে আমেরিকা ও তার মিত্রদের দায়েশ-বিরোধী অভিযানের দাবি মিথ্যা বলে গণ্য করা হয়।#

পার্সটুডে/সিরাজুল ইসলাম/২১

ট্যাগ

২০১৮-০৫-২১ ১৬:৫৪ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য