•  ঘুড়ি ও বেলুন উড়ানোর সঙ্গে জড়িত প্রধান ব্যক্তিকে টার্গেট করেই এ হামলা!

অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকা থেকে ইহুদিবাদী ইসরাইলের দিকে বেলুন এবং ঘুড়ি উড়োনোর সঙ্গে জড়িত এক প্রধান ব্যক্তিকে টার্গেট করে বিমান হামলা চালানো হয়েছে বলে ইসরাইলি সামরিক বাহিনী দাবি করেছে।

ইসরাইলের দৈনিক 'দি টাইমস' জানিয়েছে, ইসরাইলের ভিতরে ঘুড়ি উড়ানোর সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের সতর্ক করতে ইহুদিবাদী সেনারা গাজায় বিমান হামলা চালিয়েছে। গাজার বিক্ষোভকারীরা বেলুনে হিলিয়াম গ্যাস ভরে সেগুলো সীমান্তের ওপাড়ে পাঠাচ্ছে এবং এর ফলে ইসরাইলের বিভিন্ন স্থানে আগুন ধরে যাচ্ছে। ফিলিস্তিনিদের এ ধরনের প্রতিবাদে ইসরাইল আতঙ্কগ্রস্ত এবং নাস্তানাবুদ হয়ে পড়েছে।

বিবৃতিতে ইসরাইলি সামরিক বাহিনী বলেছে, বিস্ফোরক ভর্তি ঘুড়ি এবং বেলুন তৈরির সঙ্গে জড়িত এক ব্যক্তির গাড়িকে লক্ষ্য করে বিমান হামলা চালানো হয়। তবে বিবৃতিতে ওই ব্যক্তির নাম স্পষ্ট করা হয় নি বা  হামলায় কেউ হতাহত হয়েছেন কিনা তাও বলা হয় নি।   

এদিকে, ফিলিস্তিনি শেহাব সংবাদ সংস্থা জানিয়েছে, গতকাল (রোববার) সকালে গাজা উপত্যকার সুজাইয়া উপশহরে অবস্থিত একটি মসজিদের বাইরে একটি খালি গাড়িকে লক্ষ্য করে বিমান হামলা চালানো হয়েছে। ইসরাইলি সংবাদ মাধ্যমটি জানিয়েছে, তেল আবিব ঘুড়ি এবং বেলুন উড়ানোর সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে  জড়িত নয় এমন ব্যক্তিদের বিরুদ্ধেও গুপ্ত হত্যা চালাতে পারে।

এর আগে গাজা থেকে উড়ে যাওয়া ঘুড়ির বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ইসরাইলি নেতারা। দখলদার ইসরাইলের ‘জিয়ুস হাউস’ পার্টির নেতা ও সংসদ সদস্য মোটি ইউগেভ বলেছেন, গাজা থেকে উড়ে আসা প্রতিটি ঘুড়ির মোকাবেলায় একেকজন হামাস নেতাকে হত্যা করতে হবে।#

পার্সটুডে/বাবুল আখতার/১৭

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

২০১৮-০৬-১৭ ১৮:৪২ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য