• ইসরাইলের একটি এফ-সিক্সটিন জঙ্গিবিমান
    ইসরাইলের একটি এফ-সিক্সটিন জঙ্গিবিমান

সিরিয়ায় রুশ বিমান ভূপাতিত হয়ে অন্তত ১৫ জন নিহত হয়েছে। ইসরাইলি বিমান হামলার সময় এ ঘটনা ঘটে। সিরিয়ার বিমান প্রতিরক্ষা ইউনিট ইসরাইলি জঙ্গিবিমান লক্ষ্য করে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করলেও সেটি গিয়ে রুশ বিমানকে আঘাত করে। কারণ ইসরাইলের জঙ্গিবিমানগুলো এমন এক অবস্থান থেকে সিরিয়ায় হামলা করছিল যাতে যেকোনো পাল্টা আঘাতে প্রথমে রুশ বিমান ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

রাশিয়া বলেছে, ইহুদিবাদী ইসরাইল ইচ্ছাকৃতভাবে এ পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছে এবং রাশিয়া এর জবাব দেওয়ার অধিকার রাখে।

প্রথমে সিরিয়ার আকাশসীমা থেকে একটি আইএল-২০ সামরিক বিমান নিখোঁজ হওয়ার খবর দেয় রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। রুশ বিবৃতিতে বলা হয়েছিল, সোমবার রাতে ইহুদিবাদী ইসরাইলের চারটি বিমান যখন সিরিয়ার লাতাকিয়ায় অবস্থিত রাষ্ট্রীয় কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের ওপর হামলা চালাচ্ছিল তখন রুশ বিমানটি রাডার থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। 

এরপর অনুসন্ধানের মাধ্যমে রাশিয়া নিশ্চিত হয়েছে, বিমানটি বিধ্বস্ত হয়েছে। এ বিষয়ে আজ রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলেছে, ইহুদিবাদী ইসরাইল ইচ্ছাকৃতভাবে এ ঘটনা ঘটিয়েছে। রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সোমবার রাতে চারটি ইসরাইলি এফ-সিক্সটিন জঙ্গিবিমান ভূমধ্যসাগর থেকে সিরিয়ার লাতাকিয়ায় হামলা চালায়। জঙ্গিবিমানগুলো খুব নিচে নেমে এসে ওই অঞ্চলের বিমান ও জাহাজগুলোর জন্য বিপদজনক পরিস্থিতি সৃষ্টি করে। ইসরাইলি হামলার সময় ওই অঞ্চলে ফ্রান্সের একটি ফ্রিগেটও ছিল বলে বিবৃতিতে জানানো হয়েছে।

রাশিয়া বলেছে, রুশ বিমান ধ্বংস এবং রুশ সামরিক ব্যক্তিত্বদের মৃত্যুর জন্য ইসরাইল দায়ী। কারণ ইচ্ছাকৃতভাবে রাশিয়ার বড় আকারের এই বিমানটিকে ঢাল হিসেবে ব্যবহার করেছে ইসরাইলি জঙ্গিবিমান। এছাড়া ওই এলাকায় বিমান হামলা চালানোর কথা আগেভাগে রাশিয়াকে জানায় নি দখলদার ইসরাইল।#

পার্সটুডে/সোহেল আহম্মেদ/১৮

ট্যাগ

২০১৮-০৯-১৮ ১৫:৪৯ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য