• এর্দোগান (বামে) ও পুতিন
    এর্দোগান (বামে) ও পুতিন

ইদলিবে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযান না চালানোর বিষয়ে রাশিয়ার সোচিতে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও তুর্কি প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এর্দোগানের সমঝোতাকে স্বাগত জানিয়েছে সিরিয়া ও ইরান।

বাশার আসাদের সরকার বলেছে, তাদের সঙ্গে ব্যাপক পরামর্শ ও পরিপূর্ণ সমন্বয়ের ভিত্তিতেই রাশিয়া এ সমঝোতা করেছে। সিরিয়ার সরকার সেদেশের জনগণের রক্তক্ষয় ঠেকাতে বন্ধপরিকর বলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র জানিয়েছে। সূত্রটি আরও বলেছে, সিরিয়া তার ইঞ্চি ভূমি উদ্ধারের বিষয়ে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। সিরিয়া প্রয়োজনে এ ক্ষেত্রে আলোচনা ও সমঝোতার পথকেও স্বাগত জানাবে।

এর আগে ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানও ইদলিব ইস্যুতে সমঝোতাকে স্বাগত জানিয়েছে। ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বাহরাম কাসেমি বলেছেন, রাশিয়ার সোচিতে ইদলিব নিয়ে সমঝোতা হয়েছে তা বাকি সন্ত্রাসীদের নির্মূলে ভূমিকা রাখবে।

সিরিয়া ইস্যুতে সাম্প্রতিক বিভিন্ন আলোচনার ভিত্তিতেই এ সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে ইরান জানিয়েছে। তেহরান বলছে, এর ফলে ইদলিবে যুদ্ধের প্রয়োজন হবে না।

সিরিয়ার ইদলিব প্রদেশে একটি বেসামরিক বাফার জোন তৈরি করতে গত সোমবার সম্মত হয়েছে রাশিয়া ও তুরস্ক। বেসামরিক বাফার জোন ১৫ থেকে ২০ কিলোমিটার বিস্তৃত হবে। আগামী ১৫ অক্টোবরের আগে এটি কার্যকর করা হবে। রাশিয়া ও তুরস্কের মধ্যকার এই চুক্তি অনুসারে ইদলিবের বাফার জোন থেকে সমস্ত ভারী অস্ত্র প্রত্যাহার করা হবে এবং আল-কায়েদার সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত জাবহাত ফতেহ আশ-শামের সন্ত্রাসীদেরকে তুরস্ক সরিয়ে নেবে।#

পার্সটুডে/সোহেল আহম্মেদ/১৯

ট্যাগ

২০১৮-০৯-১৯ ১৯:৫০ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য