• চীনের প্রভাব খর্ব করার লক্ষ্যে আমেরিকার সঙ্গে নৌ-তৎপরতা বাড়াবে জাপান

আমেরিকার সঙ্গে প্রশিক্ষণমূলক নৌ-তৎপরতা আরো গভীর করবে জাপান। দক্ষিণ এবং পূর্ব চীন সাগরে মিত্রদের সঙ্গে যৌথ সামরিক তৎপরতা বাড়ানোর পরিকল্পনার অংশ হিসেবে এটি করবে জাপান। এই দুই সাগরের বিরোধপূর্ণ এলাকায় চীনের প্রভাব খর্ব করার লক্ষ্যে এ পরিকল্পনা নিয়েছে জাপান।

পূর্ব চীন সাগরের বিতর্কিত এলাকায় চীনা জাহাজের বারবার ঢোকার কথা উল্লেখ করে জাপানের নতুন প্রতিরক্ষামন্ত্রী তোমোমি ইনাদা বলেছেন, মার্কিন নেতৃত্বাধীন সামরিক তৎপরতায় আরো বেশি করে অংশ নেবে তার দেশ।

পূর্ব চীন সাগরের দিয়াউয়ু বা সেনকাকু দ্বীপ নিয়ে চীন ও জাপানের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে উত্তেজনা বিরাজ করছে। বেইজিং বলছে, প্রাচীন কাল থেকে ওই এলাকা নিয়ন্ত্রণ করছে চীন। অন্যদিকে ১৮৯৫ সাল থেকে ওই এলাকা নিয়ন্ত্রণ করছে জাপান। 

জাপান ২০১২ সালে দ্বীপটিকে জাতীয়করণ করার পর থেকে প্রায়ই চীনা জাহাজ ও বিমান বিতর্কিত অঞ্চল দিয়ে টহল দেয়। চীনও ওই দ্বীপের মালিকানা দাবি করে আসছে। দিয়াইউ বা সেনকাকু দ্বীপের সার্বভৌমত্বের বিষয়ে কোনো আপোশ করবে না বলে এর আগে ঘোষণা করেছে টোকিও এবং বেইজিং।

চীনা উপকূল থেকে দ্বীপটি ৩০০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। ২০১৩ সালের নভেম্বর মাসে বিতর্কিত দ্বীপপুঞ্জকে ঘিরে আকাশ প্রতিরক্ষা জোন গঠন করে বেইজিং।

এছাড়া, দক্ষিণ চীন সাগরের বেশিরভাগ এলাকার ওপর অধিকার দাবি করছে বেইজিং। এ নিয়ে প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে টানাপড়েন চলছে। এ এলাকা দিয়ে মাঝে মাঝেই টহল দেয় মার্কিন যুদ্ধজাহাজ বা যুদ্ধবিমান।#

পার্সটুডে/মূসা রেজা/১৬

 

ট্যাগ

২০১৬-০৯-১৬ ১৯:১৬ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য