• ইরানের প্রেসিডেন্টকে স্বাগত জানান রাম নাথ কোবিন্দ ও নরেন্দ্র মোদি
    ইরানের প্রেসিডেন্টকে স্বাগত জানান রাম নাথ কোবিন্দ ও নরেন্দ্র মোদি

নয়া দিল্লিতে আজ (শনিবার) ইরানের প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানিকে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাগত জানিয়েছেন ভারতের প্রেসিডেন্ট রাম নাথ কোবিন্দ ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ২১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে ড. রুহানিকে প্রেসিডেন্ট ভবনে স্বাগত জানানো হয়। এসময় দু’দেশের জাতীয় সঙ্গীত বাজানো হয়।

ওই অনুষ্ঠান শেষে দু’দেশের প্রেসিডেন্টরা তাদের সঙ্গে উপস্থিত থাকা প্রতিনিধিদের পরিচয় করিয়ে দেন। পরে ড. হাসান রুহানি রাজঘাটে গিয়ে 'ভারতের জাতির জনক' মহাত্মা গান্ধীর সমাধিতে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন।  

গান্ধীর সমাধিতে রুহানির শ্রদ্ধা

ড.  হাসান রুহানি সাংবাদিকদের সামনে ইরান ও ভারতকে এশিয়ার দু’টি গুরুত্বপূর্ণ দেশ উল্লেখ করে পারস্পারিক সম্পর্কের সম্প্রসারণের ফলে উভয় দেশের জনগণ উপকৃত হবে এবং বিশেষ করে আঞ্চলিক শান্তি ও নিরাপত্তার জন্য তা লাভদায়ক হবে বলে মন্তব্য করেন।    

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের সঙ্গে প্রেসিডেন্ট রুহানির বৈঠক

সুষমার সঙ্গে রুহানির বৈঠক

ইরানের প্রেসিডেন্ট রুহানি আজ ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের সঙ্গে বৈঠক করে গুরুত্বপূর্ণ আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক ইস্যু নিয়ে আলোচনা করেছেন। এসময় উভয় নেতা পারস্পারিক আগ্রহের বিষয়ে আলোচনা এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রে দু’দেশের মধ্যে সম্পর্ক সম্প্রসারণের প্রয়োজনীয়তার উপরে গুরুত্ব আরোপ করেন। 

তিনি আজ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বিশেষ বৈঠকে দ্বিপক্ষীয় সংলাপসহ আঞ্চলিক ইস্যুতে অন্য ভারতীয় নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করবেন। এছাড়া তিনি থিংক ট্যাঙ্ক ‘অবজারভার রিসার্চ ফাউন্ডেশন’-র এক বৈঠকেও ভাষণ দেবেন।         

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আমন্ত্রণে ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি গত বৃহস্পতিবার ভারত সফর শুরু করেন।

ইরানের প্রেসিডেন্টকে লাল গালিচা সংবর্ধনা

বৃহস্পতিবার তিনি তেহরান থেকে হায়দারাবাদে পৌঁছান। সেখানে দুই দিন অবস্থানের পর আজ রাজধানী নয়া দিল্লি পৌঁছেছেন। হায়দারাবাদে গতকাল জুমার নামাজে ভাষণ দেয়ার পাশাপাশি ভারতীয় আলেমদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। 

রুহানির সঙ্গে ইরানের উচ্চ পর্যায়ের রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক প্রতিনিধি দল রয়েছে। এরইমধ্যে ইরানের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ বৈঠক করেছেন। এ সময় ড. রুহানি বলেছেন, ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নের ক্ষেত্রে কোনো সীমাবদ্ধতা নেই। দুই দেশের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গোটা অঞ্চলের জন্যই কল্যাণ বয়ে আনবে বলে তিনি জানান। এ সময় ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তারা সব ক্ষেত্রে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক জোরদার করতে চান।#

পার্সটুডে/সোহেল আহম্মেদ/আবদুল হাকিম/আশরাফুর রহমান/১৭

ট্যাগ

২০১৮-০২-১৭ ১৪:৪৭ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য