• ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা পর্যবেক্ষণ করছেন কিম জং-উন (ফাইল ছবি)
    ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা পর্যবেক্ষণ করছেন কিম জং-উন (ফাইল ছবি)

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন বলেছেন, তার দেশ সব ধরনের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সেইসঙ্গে একটি পরমাণু অস্ত্র পরীক্ষা কেন্দ্রও বন্ধ করে দেয়া হবে।

কিমের বরাত দিয়ে উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা কেসিএনএ আজ (শনিবার) এ তথ্য জানিয়েছে। বার্তা সংস্থাটির খবরে বলা হয়েছে, “২১ এপ্রিল থেকে উত্তর কোরিয়া পরমাণু অস্ত্র পরীক্ষা এবং আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা বন্ধ রাখবে।”

এর কারণ হিসেবে কেসিএনএ বলেছে, পরমাণু অস্ত্র তৈরির প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করেছে উত্তর কোরিয়া। তাই আর এ অস্ত্রের পরীক্ষা চালানোর প্রয়োজন নেই।

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইনের সঙ্গে বহুল আলোচিত সাক্ষাতের এক সপ্তাহ আগে এ ঘোষণা দিলেন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন।

এতদিন আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে পরমাণু অস্ত্র ও ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়ে আসছিল পিয়ংইয়ং। গত নভেম্বরে উত্তর কোরিয়া ঘোষণা করেছিল, দেশটি এমন একটি আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করেছে যা দিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের যেকোনো স্থানে আঘাত হানা সম্ভব। পশ্চিমা দুনিয়া ওই পরীক্ষার তীব্র নিন্দা জানায়।

আগামী জুন মাসে ট্রাম্প ও কিমের মধ্যে সরাসরি সাক্ষাতের কথা রয়েছে

সম্প্রতি উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন এবং দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইনের মধ্যে টেলিফোন হটলাইন স্থাপিত হয়। এ ছাড়া, দুই চির শত্রুভাবাপন্ন দেশের শীর্ষ নেতারা আগামী সপ্তাহে সাক্ষাৎ করবেন বলে কথা রয়েছে। এ সাক্ষাৎ অনুষ্ঠিত হলে তা হবে গত এক দশকেরও বেশি সময়ের মধ্যে দুই কোরিয়ার শীর্ষ নেতাদের মধ্যে প্রথম বৈঠক।

এ ছাড়া, কিম জং-উন আগামী জুন মাসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করবেন বলে কথা রয়েছে। ওই বৈঠক অনুষ্ঠিত হলে তা হবে আমেরিকা ও উত্তর কোরিয়ার ইতিহাসি দুই দেশের শীর্ষ নেতাদের মধ্যে প্রথম বৈঠক।#

পার্সটুডে/মুজাহিদুল ইসলাম/২১

 

ট্যাগ

২০১৮-০৪-২১ ০৭:১৬ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য