• রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন
    রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন

মার্কিন নেতৃত্বাধীন পশ্চিমা সামরিক জোট ন্যাটোকে পূর্বদিকে অগ্রসর হওয়ার ব্যাপারে কড়া সতর্কবাণী উচ্চারণ করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। তিনি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, ন্যাটো যদি ইউক্রেন ও জর্জিয়ার সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা বাড়াতে চায় তাহলে তার পরিণতি ভালো হবে না।

গতকাল (বৃহস্পতিবার) মস্কোয় একদল রুশ কূটনীতিকের সঙ্গে বৈঠকে পুতিন এ সতর্কতা উচ্চারণ করেন। তিনি বলেন, রাশিয়ার পশ্চিম সীমান্তে ন্যাটোর পক্ষ থেকে সেনা ও সামরিক সরঞ্জাম মোতায়েন গ্রহণযোগ্য নয়।

রুশ প্রেসিডেন্ট বলেন, “এ ধরনের পদক্ষেপ রাশিয়ার নিরাপত্তার জন্য সরাসরি হুমকি সৃষ্টি করছে এবং আমরা এ ধরনের আগ্রাসী পদক্ষেপের উপযুক্ত জবাব দেব।”

হেলসিংকিতে ট্রাম্পের সঙ্গে পুতিন সাক্ষাৎ

পুতিন আরো বলেন, যারা পরিস্থিতিকে আরো ঘোলাটে করার জন্য ইউক্রেন ও জর্জিয়াকে ন্যাটো জোটে নিতে চান তাদের উচিত এ ধরনের দায়িত্বজ্ঞানহীন নীতির সম্ভাব্য পরিণতি সম্পর্কে চিন্তুভাবনা করা।  সম্প্রতি ফিনল্যান্ডের রাজধানী হেলসিংকিতে দ্বিপক্ষীয় শীর্ষ সম্মেলনে মস্কোর এ প্রতিবাদের কথা মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে জানানো হয়েছে বলে উল্লেখ করেন পুতিন।

দক্ষিণ ওশেটিয়া অঞ্চল নিয়ে বিরোধের জের ধরে জর্জিয়া ও রাশিয়ার মধ্যে ২০০৮ সালে যুদ্ধ হয়। জর্জিয়ার আরেকটি বিচ্ছিন্নতাবাদী অঞ্চল আবখাজিয়াকে পৃষ্ঠপোষকতা দেয়ার লক্ষ্যে রাশিয়া সেখানে সেনা মোতায়েন করে রেখেছে। এদিকে ইউক্রেনের ক্রিমিয়া প্রজাতন্ত্রে অনুষ্ঠিত এক গণভোটের জের ধরে এটিকে রুশ ফেডারেশনে অন্তর্ভুক্ত করার পর পাশ্চাত্যের সঙ্গে রাশিয়ার সম্পর্কের মারাত্মক অবনতি হয়।#

পার্সটুডে/মুজাহিদুল ইসলাম/২০

 

২০১৮-০৭-২০ ০৫:৪৮ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য