আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের উদাসীনতার কারণে পুয়ের্তো রিকো দ্বীপে গত বছর হারিকেন মারিয়ায় দুই হাজার নয়শ' ৭৫ জন মারা গেছে। এ অভিযোগ করেছেন দ্বীপটির রাজধানী সান জুয়ানের মেয়র কারমেন ইউলিন ক্রুজ।

তিনি বলেছেন, দ্বীপে বিপুল সংখ্যক মানুষের মৃত্যুর জন্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের লজ্জা পাওয়া উচিত। এতো মৃত্যুর পরও দ্বীপবাসীর প্রতি সহমর্মিতা জানান নি তিনি। তিনি একবারের জন্যও বলেন নি, আমি পুয়ের্তো রিকোর মানুষের সঙ্গে সমব্যথী।

মেয়র বলেন, অনেক মানুষের মৃত্যুর জন্য ট্রাম্পের উদাসীনতা দায়ী। তিনি ঘূর্ণিঝড়ের সময় এমন ভাব দেখিয়েছেন যে, এই বুঝি সাহায্য করছেন। কিন্তু আসলে সাহায্য আসে নি। শুধু তাই নয় অন্যান্য দেশকেও আমাদের সাহায্যে এগিয়ে আসতে দেন নি ট্রাম্প।

ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ সামলে নিতে তারা মার্কিন সরকারের কাছে ১৩৯ বিলিয়ন (১৩ হাজার ৯০০ কোটি) মার্কিন ডলার অর্থ সহায়তা চেয়েও পায় নি বলে অভিযোগ করা হয়েছে।

গত বছরের সেপ্টেম্বরে ক্যারিবিয়ান অঞ্চলের মার্কিন দ্বীপটিতে বিধ্বংসী হারিকেন মারিয়া আঘাত হানার পর তখন জানানো হয়, এতে ৬৪ জনের প্রাণহানি হয়েছে। গত মঙ্গলবার স্থানীয় সরকার তদন্ত শেষে জানায়, প্রকৃত প্রাণহানির সংখ্যা আগের চেয়ে প্রায় ৫০ গুণ বেশি।

৬৪ জনের প্রাণহানির প্রাথমিক খবরের প্রেক্ষিতে তুমুল বিতর্ক হলে দীর্ঘদিনের তদন্তের পর পুয়ের্তো রিকোর গর্ভনর রিকার্ডো রিসালো সংবাদমাধ্যমকে এ তথ্য জানান। বলা হচ্ছে, কেন্দ্রীয় সরকার হারিকেন নিয়ে উদাসীনতা দেখানোয় এই আধুনিক শতাব্দীতে এসেও এতো বিপুলসংখ্যক মানুষের প্রাণ গেছে।#

পার্সটুডে/সোহেল আহম্মেদ/৩০

২০১৮-০৮-৩০ ১৯:৪১ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য