পাকিস্তান ইহুদিবাদী ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করছে বলে যে খবর বেরিয়েছে ইসলামাবাদ তাকে গুজব অভিহিত করে বলেছে এ ধরণের অপপ্রচারের বিরুদ্ধে শক্ত পদক্ষেপ নেয়া হবে।

পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মোহাম্মদ ফয়সাল এ হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। তিনি ইসরাইল ও পাকিস্তানের মধ্যকার সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার খবরকে ভিত্তিহীন আখ্যায়িত করে বলেছেন, এ ধরণের মিথ্যা খবর যারা ছড়িয়েছে তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পর্যবেক্ষকরা বলছেন, পাক পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র যদিও এ ধরণের খবরকে ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছেন কিন্তু দেশটির জাতীয় সংসদে ক্ষমতাসীন দল তেহরিকে ইনসাফ পার্টির প্রতিনিধি আসমা হাদিদ সম্প্রতি সংসদে দেয়া বক্তৃতায় দখলদার ইসরাইলকে স্বীকৃতি দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। তার এ বক্তব্য পাকিস্তানে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছে এবং ইসরাইল-পাকিস্তান সম্পর্ক নিয়ে নানা গুঞ্জন শুরু হয়েছে। পিটিআই দলের সংসদ সদস্য হিসেবে আসমা হাদিদের এ বক্তব্যকে পাকিস্তানের বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, ধর্মীয় সংগঠন ও ব্যক্তিত্ব একে পিটিআই দলের নীতি হিসেবেই ধরে নিয়েছেন। ইসরাইলের সঙ্গে পাকিস্তানের সম্পর্কের গুঞ্জন নিয়ে দেশটির জনমনেও ব্যাপক প্রতিক্রিয়া হয়েছে।

তেহরিকে ইনসাফ পার্টির প্রতিনিধি আসমা হাদিদ

পাকিস্তানের ধর্মীয় নেতারা বলছেন, ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার আহ্বান জানিয়ে পিটিআই দলের সংসদ সদস্যের এ বক্তব্য পবিত্র কুরআন ও হাদিসের শিক্ষার সম্পূর্ণ পরিপন্থী। এ কারণে দেশটির ধর্মীয় সংগঠনগুলো এরই মধ্যে জানিয়ে দিয়েছে, পাকিস্তানের ব্যাপারে হস্তক্ষেপ করার বা লক্ষ্য অর্জনের কোনো সুযোগ ইসরাইলকে দেয়া হবে না। পাকিস্তানের শিয়া ও সুন্নি ধর্মীয় নেতারাও সম্প্রতি লেবাননে অনুষ্ঠিত  ওলামা পরিষদের বৈঠকে বলেছেন, ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার যে কোনো উদ্যোগ ইসলাম, মুসলিম উম্মাহ ও মানবতার বিরুদ্ধে বিশ্বাসঘাতকতার শামিল।

পাকিস্তানের মোত্তাহিদা মজলিশে আমাল দলের উপপ্রধান মাওলানা আব্দুল গাফুর হায়দারি, আহলে হাদিস ওলামা পরিষদের নেতা আল্লামা ইবতেসাম এলাহি জাহির, আল্লামা কাজি আব্দুল কাদিরসহ আরো অন্যান্য ধর্মীয় নেতারা ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে পিটিআই নেতা আসমা হাদিদের বক্তব্য প্রত্যাহারের আহ্বান জানিয়েছেন।

মাওলানা আব্দুল গাফুর হায়দারি

বিশ্লেষকরা বলছেন, প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের নেতৃত্বে পাকিস্তান সরকারের নীতির সমালোচনা থেকে বোঝা যায়, সৌদি আরবের সঙ্গে আরো ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা ও দেশটির কাছ থেকে এক হাজার ২০০ কোটি ডলার সাহায্য নেয়ার ব্যাপারে বিভিন্ন মহলে সৃষ্ট উদ্বেগ ও সন্দেহ অমূলক ছিল না। অনেকে আশঙ্কা করছেন ইসরাইল ও পাকিস্তানের মধ্যে সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার জন্য সৌদি আরব মধ্যস্থতার ভূমিকা পালন করতে পারে। আর এ কারণেই হয়তো সৌদি আরব পাকিস্তানকে বিপুল অংকের সাহায্য দিয়েছে।

সম্প্রতি ইসলামাবাদের বিমানবন্দরে দখলদার ইসরাইলের একটি সন্দেহজনক বিমান অবতরণ করে এবং এরপর বিমানটি পাকিস্তান ত্যাগ করে। দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক জোরদারের প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে ওই বিমানটির আগমন ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। যদিও পাক প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি ইসরাইলি বিমানের পাকিস্তানে অবতরণের খবরকে ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছেন কিন্তু ক্ষমতাসীন পিটিআই দলের প্রতিনিধির পক্ষ থেকে ইসরাইলকে স্বীকৃতি দেয়ার দাবি জানানো থেকে বোঝা যায়, চেপে রাখার চেষ্টা করা হলেও এ সংক্রান্ত খবরাখবর ধীরে ধীরে ফাঁস হচ্ছে।

মোত্তাহিদা মজলিশে আমাল দলের উপপ্রধান মাওলানা আব্দুল গাফুর হায়দারি বলেছেন, ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার জন্য পিটিআই দলের সংসদ সদস্য আসমা হাদিদের ‌আহ্বান খুবই সাধারণ বা ছোটখাটো ঘটনা বরং পর্দার আড়ালে সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার বিষয়টি হয়তো আরো অনেক দূর এগিয়ে গেছে যা এখন আর গোপন নয়।

যাইহোক, সংসদে দাঁড়িয়ে পিটিআই দলের সদস্যের এ বক্তব্যের বিরুদ্ধে পাকিস্তানে ব্যাপক প্রতিবাদ ও সমালোচনার ঘটনা থেকে বোঝা যায়, বিষয়টি কেবল আহ্বান কিংবা গুজবের পর্যায়ে নেই। এ অবস্থায় ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্কের ব্যাপারে আসমা হাদিদের বক্তব্যের ব্যাপারে ক্ষমতাসীন পিটিআই দলের সর্বোচ্চ অবস্থান থেকে প্রতিক্রিয়া দেখানো হবে বলে দেশটির  জনগণ ও ধর্মীয় নেতারা আশা করছেন। #  

পার্সটুডে/রেজওয়ান হোসেন/১৪

 

ট্যাগ

২০১৮-১১-১৪ ১৭:২৮ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য