• ইভাঙ্কা ট্রাম্প
    ইভাঙ্কা ট্রাম্প

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মেয়ে এবং হোয়াইট হাউসের শীর্ষ উপদেষ্টা ইভাঙ্কা ট্রাম্প সরকারি কাজের জন্য ব্যক্তিগত ইমেইল একাউন্ট ব্যবহার করে শত শত ইমেইল পাঠিয়েছেন বিভিন্ন স্থানে। এ ঘটনা ঘটিয়েছেন তিনি গত বছর। গতকাল (সোমবার) ওয়াশিংটন পোস্ট এ খবর দিয়েছে।

ইমেইলগুলো তিনি পাঠিয়েছেন হোয়াইট হাউসের বিভিন্ন সহযোগীর কাছে, মন্ত্রিপরিষদের সদস্যদের কাছে এবং ইভাঙ্কার নিজের সহকারীদের কাছে। ওয়াশিংটন পোস্ট দাবি করছে, সরকারি রেকর্ড সংক্রান্ত যে গোপনীয়তা বজায় রাখার নিয়ম আছে অনেক ক্ষেত্রেই ইভাঙ্কা তা লঙ্ঘন করেছেন।

হিলারি ক্লিনটন

একই কাজ করার কারণে ২০১৬ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সময় ডেমোক্র্যাট দলের প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনকে কঠোর সমালোচনা করেছিলেন ট্রাম্প। হিলারি পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালনের সময় তার ব্যক্তিগত ইমেইল সার্ভার ব্যবহার করেছিলেন। এ জন্য তাকে তাকে জেলে পাঠানো উচিত বলে মন্তব্য করেছিলেন ট্রাম্প। তবে এবার ইভাঙ্কার ইমেইল ব্যবহার নিয়ে প্রশ্নের তাৎক্ষণিক জবাব দেয় নি হোয়াইট হাউস

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প

অবশ্য, ইভাঙ্কার আইনজীবী আবে লোয়েল ওই রিপোর্ট নিয়ে কোনো আপত্তি করেন নি। মুখপাত্র পিটার মিরিজানিয়ান বলেছেন, ইভাঙ্কা এখন সরকারের অংশ। তিনি মাঝে মাঝে ব্যক্তিগত একাউন্ট ব্যবহার করেছেন। অবশ্য তা যৌক্তিক কারণে এবং তার পরিবারের শিডিউলের কথা মাথায় রেখে। তবে এসব মেইলে কোনো রাষ্ট্রীয় গোপনীয় তথ্য স্থানান্তর করা হয় নি বলে দাবি করেন মিরিজানিয়ান। তিনি বলেন, ইভাঙ্কা কোনো মেইলই মুছে দেন নি; সবগুলো রেকর্ড করা আছে।#

পার্সটুডে/এসআইবি/২০

ট্যাগ

২০১৮-১১-২০ ১৪:২১ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য