২০১৮-১১-২১ ১৮:০৬ বাংলাদেশ সময়
  • আল-কায়েদা নেতা ওসামা বিন লাদেন
    আল-কায়েদা নেতা ওসামা বিন লাদেন

পাকিস্তান সরকারিভাবে স্বীকার করেছে যে, আল-কায়েদা নেতা ওসামা বিন লাদেনের অবস্থান শণাক্ত ও তাকে ধরার কাজে ইসলামাবাদ ভূমিকা রেখেছিল। এক পেস বিজ্ঞপ্তিতে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র দপ্তর একথা বলেছে এবং এই প্রথম বিষয়টি নিয়ে পাকিস্তান সরকার প্রকাশ্যে কোনো স্বীকারোক্তি দিল।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গত রোববার এক টিভি সাক্ষাৎকারে অভিযোগ করেন যে, সন্ত্রাসবাদ-বিরোধী লড়াইয়ের জন্য তার দেশ শত শত কোটি ডলার দিয়েছে পাকিস্তানকে কিন্তু ইসলামাবাদ কিছুই করে নি। শুধু তাই নয়, আল-কায়েদা নেতা ওসামা বিন লাদেনকে পাকিস্তান আশ্রয় দিয়েছে বলেও অভিযোগ করেন ট্রাম্প।

এরপর পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ইসলামাবাদে নিযুক্ত মার্কিন চার্জ দ্যা অ্যাফেয়ার্স পল জোন্সকে তলব করে।

পাক পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়

পাক পররাষ্ট্র দপ্তর প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলেছে, পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থার তথ্য নিয়েই মার্কিন বাহিনী লাদেনের অবস্থান শণাক্ত করে। পাক সরকারের এই হিসাবি বিবৃতির মাধ্যমে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের অভিযোগ নাকচ করা হয়েছে। সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সময় বিন লাদেন মার্কিন বাহিনীর হাতে নিহত হন কিন্তু ওবামা প্রশাসন সুনির্দিষ্টভাবে বলেছিল যে, লাদেনের অবস্থান সম্পর্কে পাকিস্তান কিছুই জানতো না এমনকি লাদেনকে পাকিস্তান আশ্রয়ও দেয় নি।#

পার্সটুডে/এসআইবি/২১

ট্যাগ

মন্তব্য