• চবাহারে সন্ত্রাসী হামলার পরের দৃশ্য
    চবাহারে সন্ত্রাসী হামলার পরের দৃশ্য

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ বন্দরনগরী চবাহারে সন্ত্রাসী হামলার নিন্দা করে বলেছেন, হামলায় জড়িত সন্ত্রাসী চক্র ও তাদের প্রভুদেরকে শাস্তির আওতায় আনবে তেহরান।

সিস্তান-বালুচিস্তান প্রদেশের চবাহার শহরের পুলিশ সদর দপ্তরের কাছে গাড়ি বোমা হামলার পর এর নিন্দা জানিয়ে বৃহস্পতিবার তিনি তার টুইটার পেইজে বলেন, বিদেশি মদদপুষ্ট সন্ত্রাসীরা এই হামলা চালিয়েছে।

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ 

সন্ত্রাসীরা গাড়িভর্তি বিস্ফোরক নিয়ে পুলিশ সদর দপ্তরের দিকে যাচ্ছিল কিন্তু স্থানীয় নিরাপত্তা বাহিনী দ্রুত ওই গাড়িকে বাধা দিলে তাদের সে পরিকল্পনা ব্যর্থ হয়। এ হামলায় অন্তত দুই পুলিশ নিহত ও ৪০ জনের মতো আহত হয়েছে। বিস্ফোরণে আত্মঘাতী  হামলাকারী মারা গেছে। কথিত আনসারুল ফুরকান হামলার দায় স্বীকার করেছে।

জারিফ বলেন, “আমরা আগেও যেমনটি বলেছি যে, এ ধরনের অপরাধ বিনা শাস্তিতে পার পাবে না। ২০১০ সালে সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে ইরানের দিকে সন্ত্রাসীরা যাওয়ার সময় আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী তাদেরকে ধরে ফেলেছিল।” এ কথার মাঝ দিয়ে কথিত জুন্দুল্লাহ সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর নেতা আবদুল মালেক রিগির কথা উল্লেখ করেছেন জারিফ।  তার আগে এই গোষ্ঠী সিস্তান-বালুচিস্তানে সন্ত্রাসী হামলা চালায় এবং তাতে ৪০ জন নিহত হন। পরে ইরানের নিরাপত্তা বাহিনী রিগির গ্রুপের বিরুদ্ধে অভিযান চালায় এবং রিগিকে পরে ফাঁসি দেয়া হয়।#

পার্সটুডে/এসআইবি/৬

খবরসহ আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত সব লেখা ফেসবুকে পেতে এখানে ক্লিক করুন এবং নোটিফিকেশনের জন্য লাইক দিন

ট্যাগ

২০১৮-১২-০৭ ০০:৪৮ বাংলাদেশ সময়
মন্তব্য