২০১৮-১২-২৩ ১৬:৩৭ বাংলাদেশ সময়

ইন্দোনেশিয়ার জাভা ও সুমাত্রা দ্বীপের মধ্যবর্তী সুন্দা প্রণালীর উপকূলে ভয়াবহ সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৬৭ জনে দাঁড়িয়েছে। এতে আহত হয়েছেন প্রায় ৭৪৫ জন এবং নিখোঁজ রয়েছেন অন্তত ৩০ জন। গতরাতে ভয়াবহ এ সুনামি আঘাত হানে এবং সে সময় সমুদ্রের ৬৫ ফুট উচ্চতার ঢেউ সৃষ্টি হয়।

প্রথমিকভাবে ৪০ জন নিখোঁজ হওয়ার কথা বলা হলেও পরবর্তীতে ইন্দোনেশিয়ার অনুসন্ধান ও উদ্ধারকারী দল বিভিন্ন ধ্বংস্তুপের ভেতর থেকে আরো মৃতদেহ বের করে আনে। সরকারি তথ্যের বরাত দিয়ে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন গণমাধ্যম এ খবর দিয়েছে। মৃতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে আশংকা করা হচ্ছে।

ইন্দোনেশিয়ায় সুনামিতে ক্ষয়ক্ষতি

দেশটির দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংস্থার মুখপাত্র সুতোপো পুরয়ো নুগ্রহো জানিয়েছেন, সুনামির আঘাতে শত শত বাড়িঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ক্রাকাতাউ আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতের ফলে সমুদ্রের নিচে ভূমিধসের কারণে সুনামি ঘটে থাকতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে প্যানদেগ্ল্যাং, দক্ষিণ লাম্পাং ও সেরাং এলাকায়।

ইন্দোনেশিয়ায় সুনামিতে ক্ষয়ক্ষতির চিত্র

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংস্থা বলছে, পূর্ণিমার কারণে সাগর আরো ফুঁসে উঠতে পারে। সুতোপো তার টুইটার অ্যাকাউন্টে দেয়া পোস্টে জানিয়েছেন, সুনামিতে ৪৩০টি বাড়ি এবং নয়টি হোটেল মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বানতেন প্রদেশের প্যানদেগ্ল্যাং এলাকা। এর আগে গত ২৮ সেপ্টেম্বর ইন্দোনেশিয়ার সুলাওয়েসি দ্বীপে শক্তিশালী ভূমিকম্প ও সুনামির আঘাতে দুই হাজারের বেশি মানুষ মারা যান।#

পার্সটুডে/এসআইবি/২৩

ট্যাগ

মন্তব্য