২০১৯-০২-১৭ ১৫:৪৫ বাংলাদেশ সময়
  • হিদার নয়ের্ট
    হিদার নয়ের্ট

জাতিসংঘে আমেরিকার রাষ্ট্রদূত পদের প্রার্থীতা থেকে নিজেকে প্রত্যাহার করে নিয়েছেন হিদার নয়ের্ট। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প নয়ের্টকে এ পদের জন্য পছন্দ করেছিলেন।

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের তথ্য অনুসারে, হিদার নয়ের্ট পারিবারিক কারণ দেখিয়ে সম্ভাব্য রাষ্ট্রদূত পদের প্রার্থীতা থেকে নিজেকে প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। তিনি ট্রাম্প প্রশাসনের পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র হিসেবে কাজ করে আসছিলেন। এর আগে তিনি ফক্স নিউজ টেলিভিশন চ্যানেলের ‘ফক্স অ্যান্ড ফ্রেন্ড’ অনুষ্ঠানের উপস্থাপিকা হিসেবে কাজ করতেন। এটি প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের বিশেষ পছন্দের অনুষ্ঠান। পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র হিসেবে দায়িত্ব দেয়ার পর কূটনৈতিক অভিজ্ঞতার ঘাটতি নিয়ে ডেমোক্র্যাটরা নয়ের্টের সমালোচনা করেছিলেন।

দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্ট পত্রিকা এক রিপোর্টে বলেছে, নয়ের্টের স্বামী ও সন্তানরা নিউ ইয়র্কে ছিলেন কিন্তু নয়ের্ট চাকরি করেন ওয়াশিংটন ডিসিতে যা পরিবারের জন্য কষ্টের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছিল। অন্যদিকে, কয়েকটি সূত্রের বরাত দিয়ে ব্লুমবার্গ টেলিভিশন জানিয়েছে, রাষ্ট্রদূত হিসেবে মনোনয়ন দেয়ার আগে তার ব্যক্তিগত বিষয়াদি সম্পর্কে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে- হিদার নয়ের্ট এমন এক নারীকে আয়া হিসেবে নিয়োগ দিয়েছেন যিনি বৈধভাবে আমেরিকায় থাকেন কিন্তু কাজ করার অনুমতি নেই।  

৪৯ বছর বয়সী নয়ের্ট এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, তিনি একেবারেই সরকারি চাকরি ছেড়ে দিচ্ছেন। গত দু বছর পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র হিসেবে কাজ করাকে তিনি সর্বোচ্চ সম্মানের বিষয় বলেও উল্লেখ করেছেন।#

পার্সটুডে/এসআইবি/১৭

ট্যাগ

মন্তব্য