২০১৯-০৪-২৬ ০৭:২৫ বাংলাদেশ সময়
  • শ্রীলঙ্কায় নিহতের সংখ্যা কমানো হলো ১০৬ জন: হিসাবে ভুল হওয়ার দাবি

শ্রীলঙ্কার কয়েকটি গির্জা ও হোটেলে গত রোববারের পাশবিক হামলায় নিহতের যে সংখ্যা এর আগে প্রকাশ করা হয়েছিল তা থেকে ১০০ জনেরও বেশি কমিয়ে দিয়েছে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। এটি বলেছে, ‘হিসাবে ভুল’ হওয়ার কারণে এই বিভ্রান্তি হয়েছে। শ্রীলঙ্কার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এখন বলছে, রোববারের ধারাবাহিক হামলায় প্রায় ২৫৩ জন নিহত হয়েছে। এর আগে সর্বশেষ নিহতের সংখ্যা ৩৫৯ জন বলে প্রচার করা হয়েছিল।

গত রোববার সকালে রাজধানী কলম্বো এবং পূর্বাঞ্চলীয় বাত্তিকালোয়া জেলায় ধারাবাহিক আত্মঘাতী বোমা হামলায় অপর শত শত মানুষ আহত হন। হতাহতদের বেশিরভাগ শ্রীলঙ্কার নাগরিক হলেও তাদের মধ্যে বহু বিদেশি রয়েছেন।

শ্রীলঙ্কার উপ প্রতিরক্ষামন্ত্রী রুয়ান ভিজেবর্ধনে বলেছেন, নিহতের সংখ্যার ব্যাপারে হাসপাতালগুলোর মর্গের পক্ষ থেকে এতদিন ভুল তথ্য সরবরাহ করা হচ্ছিল। এ ছাড়া, দেশটির স্বাস্থ্যসেবা কর্তৃপক্ষের প্রধান বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন, নিহতদের দেহ এত বেশি ছিন্নভিন্ন হয়ে গিয়েছিল যে, নিহতদের সঠিক সংখ্যা নিরূপণ করা কষ্টসাধ্য ব্যাপার হয়ে গিয়েছিল।

হামলায় বিধ্বস্ত একটি গির্জা

তবে বিবিসির দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক সম্পাদক জিল ম্যাকগাইভারিং বলেছেন, রোববারের হামলা প্রতিহত করতে গোয়েন্দা ব্যর্থতার বিষয়টি সামাল দিতে সরকার যখন হিমশিম খাচ্ছিল তখনই হঠাৎ নিহতের সংখ্যা কমিয়ে দেয়া হলো।  তিনি আরো বলেন, ওই হামলা সম্পর্কে ভুয়া খবর ও গুজব রটনাও এখন কলম্বো সরকারের জন্য বড় ধরনের চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। তার মতে, নিহতের সংখ্যা কমিয়ে দিলেও কলম্বো এই ক্ষেত্রে তেমন কোনো সুবিধা পাবে বলে মনে হচ্ছে না।

রোববারের ভয়াবহ হামলার ঘটনায় জড়িত সন্দেহভাজন সাত ব্যক্তিকে ধরার জন্য পুলিশ তল্লাশি অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে। শ্রীলঙ্কার কর্তৃপক্ষ ওই ভয়াবহ হামলার জন্য স্থানীয় উগ্রপন্থি সংগঠন ন্যাশনাল তৌহিদ জামাত বা এনটিজে’কে দায়ী করে বলেছে, বিদেশি যোগসাজশে এ হামলা চালানো হয়েছে। অন্যদিকে উগ্র তাকফিরি সন্ত্রাসী গোষ্ঠী দায়েশ বা আইএস শ্রীলঙ্কায় হামলা চালানোর দায় স্বীকার করলেও তারা কোনো প্রমাণ তুলে ধরতে পারেনি।#

পার্সটুডে/মো. মুজাহিদুল ইসলাম/২৬

 

ট্যাগ

মন্তব্য