২০১৯-০৯-১২ ০৬:৩৬ বাংলাদেশ সময়
  • মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প
    মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আবার দাবি করেছেন, ইরান তার দেশের সঙ্গে আলোচনায় বসতে চায়।তিনি স্থানীয় সময় বুধবার হোয়াইট হাউজে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, “ইরান ওয়াশিংটনের সঙ্গে আলোচনা এবং একটি নতুন চুক্তি সই করতে চায়।”

ট্রাম্প তার হাস্যকার বক্তব্যে আরো দাবি করেন, তার গৃহিত নীতির কারণে ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের শক্তিমত্তা কমে এসেছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের পাশাপাশি তার পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও গত কয়েক মাসে অসংখ্যবার প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে ইরানের সঙ্গে আলোচনায় বসার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। তারা এমন সময় তেহরানের সঙ্গে আলোচনায় বসতে চান যখন এই ট্রাম্পের নেতৃত্বাধীন মার্কিন সরকার গত বছর সম্পূর্ণ বেআইনিভাবে ইরানের পরমাণু সমঝোতা থেকে বেরিয়ে গিয়ে তেহরানের ওপর কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে।

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী

আমেরিকার সঙ্গে আলোচনার এই জল্পনা সম্পর্কে ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী তার দেশের নীতি-অবস্থান স্পষ্ট করে দিয়েছেন। তিনি গত ২৬ জুন এক ভাষণে বলেছেন, বিশ্বব্যাপী ইরানের শক্তিমত্তা ও প্রভাব কমিয়ে তেহরানকে নিরস্ত্র করে ফেলার লক্ষ্যে ওয়াশিংটন ইরানের সঙ্গে আলোচনায় বসতে চায়।

তিনি আরো বলেন, ইরানের সামরিক শক্তির কারণে মার্কিনীরা এদেশের বিরুদ্ধে আগ্রাসন চালাতে ভয় পাচ্ছে; তাই তারা আলোচনায় বসে এই শক্তি খর্ব করতে চায় যাতে ভবিষ্যতে তারা ইরানকে নিয়ে যা খুশি তাই করতে পারে।এ কারণে আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী আমেরিকার সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় কোনো আলোচনা হবে না বলে স্পষ্ট ভাষায় ঘোষণা করেছেন।#

পার্সটুডে/এমএমআই/১২

বিশ্বসংবাদসহ গুরুত্বপূর্ণ সব লেখা পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে অ্যাকটিভ থাকুন।

ট্যাগ

মন্তব্য